বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ফের উপাচার্য নিয়োগ ঘিরে রাজ্য-রাজ্যপাল সংঘাত, আচার্যের টুইটের পরই জারি বিজ্ঞপ্তি
পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। 

ফের উপাচার্য নিয়োগ ঘিরে রাজ্য-রাজ্যপাল সংঘাত, আচার্যের টুইটের পরই জারি বিজ্ঞপ্তি

  • রাজ্যপাল-রাজ্য সংঘাতের এই আবহে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু টুইট বাণে বিদ্ধ করেন জগদীপ ধনখড়কে।

ফের একবার রাজ্যপালের সঙ্গে সংঘাতে জড়াল রাজ্য সরকার। শুক্রবার ডায়মন্ড হারবার মহিলা বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়া উপাচার্য নিয়োগ করেছিলেন রাজ্যপাল। বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন-কে উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ করার ঘোষণা করে টুইট করেছইলেন আচার্য জগদীপ ধনখড়। এর আগে রাজ্য সরকারের তরফে সোমা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিশ্ববিদ্যালয় অস্থায়ী উপাচার্য হিসেবে নিয়োগের কথা বলা হয়েছিল। নিজের টুইটে সেকথা উল্লেখও করেন রাজ্যপাল। তবে তাঁর যুক্তি ছিল, যেহেতু সোমা বন্দ্যোপাধ্যায় দু'টি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন, তাই তাঁর বদলে ডিন-কে নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে।

যদিও রাজ্যপালের এই টুইটের পরই পাল্টা পদক্ষেপ করে রাজ্য সরকার। উচ্চশিক্ষা দফতর এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দেয় ডায়মন্ড হারবার মহিলা বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী উপাচার্য হিসেবে সোমা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই নিয়োগ করা হচ্ছে। এদিকে বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, যেই ডিনকে রাজ্যপাল উপাচার্য পদে নিয়োগ করেছেন, তিনি এই পদ নিতে অস্বীকার করেছেন।  

এদিকে রাজ্যপাল-রাজ্য সংঘাতের এই আবহে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু টুইট বাণে বিদ্ধ করেন জগদীপ ধনখড়কে। টুইট বার্তায় শিক্ষামন্ত্রী লেখেন, 'মাননীয় মনোনীত আচার্যকে এখনও বলব যাতে তিনি তৃতীয় বারের নির্বাচিত সরকারের সঙ্গে সহযোগিতা করেন। রণংদেহী মনোভাব নিয়ে নিজের ইচ্ছে শিক্ষা দফতরের উপর চাপাবেন না। বিধি অনুযায়ী নিযুক্ত নবনির্বাচিত উপাচার্যদের অভিনন্দন।' উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই রাজ্যপাল অভিযোগ করেছিলেন যে রাজ্যের একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিয়োগ করা হয়েছে তাঁর অনুমোদন ছাড়াই। এই আবহে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু প্রস্তাব দিয়েছিলেন যে আচার্য পদে মুখ্যমন্ত্রীকে আনা হতে পারে। এই পরিস্থিতিতে উপাচার্য নিয়োগ নিয়ে নতুন করে রাজ্যের রাজ্যপাল সংঘাত প্রকাশ্যে এল। 

 

বন্ধ করুন