প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

বাগবাজার ঘাটে গলা থেকে পেট পর্যন্ত সেলাই করা দেহ উদ্ধারে অঙ্গ পাচারের আশঙ্কা

  • সেলাই দেহে পুলিশ আধিকারিকদের অনুমান, চিকিত্সক বা প্রশিক্ষিত স্বাস্থ্যকর্মী ছাড়া এই সেলাই করা সম্ভব নয়।

কলকাতার বাগবাজার ঘাটে সেলাই করা দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য। দেহটির গলা থেকে পেট পর্যন্ত নিপুণ হাতে সেলাই করা ছিল বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে উত্তর বন্দর থানার পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, দেহ থেকে অঙ্গ চুরি করে দেহটি ভাসিয়ে দিয়েছে কেউ বা কারা। ঘটনায় বড় চক্রের যুক্ত থাকার গন্ধ পাচ্ছেন গোয়েন্দারা।

মঙ্গলবার সকালে বাগবাজার ঘাটে স্নান করার সময় পাঁকে দেহটি আটকে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। তখন ভাটা চলছিল। পুলিশে খবর দিলে তারা গিয়ে দেহ উদ্ধার করে। কিন্তু দেহ ওপরে তুলতেই চক্ষু চড়কগাছ। দেখা যায়, দেহের গলা থেকে পেট পর্যন্ত নিপুণ হাতে সেলাই করা।

সেলাই দেহে পুলিশ আধিকারিকদের অনুমান, চিকিত্সক বা প্রশিক্ষিত স্বাস্থ্যকর্মী ছাড়া এই সেলাই করা সম্ভব নয়। আর এখানেই উঠে আসছে অঙ্গ পাচার চক্রের যোগ।

তদন্তকারীরা জানাচ্ছেন, অনেক সমই দেহ গায়েব করতে দেহের ভিতর ইট – পাথর ভরে দেহ জলে ভাসিয়ে দেয় দুষ্কৃতীরা। কিন্তু সেই সেলাই হয় আনাড়ি হাতের বস্তা সেলাইয়ের মতো। এক্ষেত্রে যে সেলাই দেওয়া হয়েছে তা রীতিমতো চিকিত্সাবিজ্ঞানের নির্দেশ মেনে। ফলে দেহ যারা জলে ফেলেছে তাদের সঙ্গে হাসপাতাল বা নার্সিংহোমের যোগাযোগ রয়েছে।

দেহটি কার আপাতত তা খুঁজে বার করার চেষ্টা করছে পুলিশ। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে এলে মৃত্যুর কারণ ও দেহ সেলাই করার কারণ স্পষ্ট হবে বলে মনে করছেন পুলিশ আধিকারিকরা।


বন্ধ করুন