বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > সোমবার পর্যন্ত সুবীরেশকে CBI হেফাজতে পাঠাল আদালত
সুবীরেশ ভট্টাচার্য।

সোমবার পর্যন্ত সুবীরেশকে CBI হেফাজতে পাঠাল আদালত

  • সিবিআইয়ের দাবি, শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির অন্যতম পান্ডা হলেন সুবীরেশ। গোটা দুর্নীতি তাঁর অবগতিতেই হয়েছে। ২০১৪ – ২০১৮ পর্যন্ত তিনি যখন SSC-র চেয়ারম্যান ছিলেন তখন থেকেই দুর্নীতির সূত্রপাত।

শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিতে গ্রেফতার সুবীরেশ ভট্টাচার্যকে ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সিবিআই হেফাজতে পাঠাল আদালত। মঙ্গলবার সিবিআই সুবীরেশকে আদালতে পেশ করলে জামিনের আবেদন করেন অভিযুক্তের আইনজীবীরা। সেই আবেদন খারিজ করে সুবীরেশকে সোমবার পর্যন্ত সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

এদিন আদালতে সুবীরেশের আইনজীবীরা দাবি করেন, সুবীরেশকে এখনো পর্যন্ত ৫ বার তলব করেছে সিবিআই। প্রতিবার সশরীরে বা ভার্চুয়ালি হাজিরা দিয়েছেন তিনি। ফলে তাঁর বিরুদ্ধে তদন্তে অসহযোগিতার অভিযোগ ঠিক নয়। পালটা সিবিআইয়ের আইনজীবী বলেন, নিয়োগ দুর্নীতিতে ওতপ্রতোভাবে জড়িত সুবীরেশ ভট্টাচার্য। তাঁকে অন্য অভিযুক্তদের সামনে বসিয়ে জেরা করলে নতুন তথ্য বেরোতে পারে। এর পরই সুবীরেশকে ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দেন বিশেষ সিবিআই আদালতের বিচারক।

শান্তিনিকতনে শিশু শিবম ঠাকুর খুনে গ্রেফতার প্রতিবেশী রুবি বিবি

সিবিআইয়ের দাবি, শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির অন্যতম পান্ডা হলেন সুবীরেশ। গোটা দুর্নীতি তাঁর অবগতিতেই হয়েছে। ২০১৪ – ২০১৮ পর্যন্ত তিনি যখন SSC-র চেয়ারম্যান ছিলেন তখন থেকেই দুর্নীতির সূত্রপাত। যোগ্য প্রার্থীদের নম্বরে কারচুপি করে তাদের মেধাতালিকা থেকে বাদ দিতেন তিনি। সেই শূন্যপদে নিয়োগ করা হত অযোগ্য প্রার্থীদের। গোটা প্রক্রিয়ায় কোথা থেকে কী ভাবে টাকা যেত তাও জানা ছিল তাঁর।

যদিও তদন্তের শুরু থেকেই সুবীরেশ দাবি করেছেন, তাঁর জমানায় কোনও দুর্নীতি হয়নি। তবে পদ্ধতিগত ভুল হয়ে থাকতে পারে। যদিও তা মানতে রাজি নয় সিবিআই। তাদের দাবি, গোটা দুর্নীতিতে সমানভাবে যুক্ত সুবীরেশ।

সোমবার দীর্ঘক্ষণ জেরার পর নবম – দশম শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিতে SSC প্রাক্তন চেয়ারম্যান তথা উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের সুবীরেশ ভট্টাচার্যকে গ্রেফতার করেছে সিবিআই।

 

বন্ধ করুন