বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ক্রেতাসুরক্ষা দফতরের দায়িত্ব পেলেন সুব্রত, দফতরবিহীন মন্ত্রী হলেন অসুস্থ সাধন

ক্রেতাসুরক্ষা দফতরের দায়িত্ব পেলেন সুব্রত, দফতরবিহীন মন্ত্রী হলেন অসুস্থ সাধন

ক্রেতাসুরক্ষা দফতরের দায়িত্ব পেলেন সুব্রত, দফতরবিহীন মন্ত্রী হলেন অসুস্থ সাধন;‌ ছবি (‌সৌজন্য ফেসবুক)‌

শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজ্যপালের সীলমোহর-‌সহ নবান্নের স্বরাষ্ট্র দফতর থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। সেই বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এখন থেকে পঞ্চায়েত দফতরের পাশাপাশি ক্রেতা সুরক্ষা দফতরও সামলাবেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়।

জল্পনা চলছিলই। সেটাই সত্যি হল। এবার থেকে পঞ্চায়েত দফতরের পাশাপাশি ক্রেতা সুরক্ষা দফতরও সামলাবেন পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। আপাতত দফতরবিহীন মন্ত্রী হিসাবেই থাকছেন অসুস্থ সাধন পান্ডে। শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজ্যপালের সিলমোহর-‌সহ নবান্নের স্বরাষ্ট্র দফতর থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। সেই বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এখন থেকে পঞ্চায়েত দফতরের পাশাপাশি ক্রেতা সুরক্ষা দফতরও সামলাবেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়।

গত একমাস ধরে ডামাডোল অবস্থা ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের। ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের মন্ত্রী সাধন পান্ডে গুরুতর অসুস্থ হয়ে হালপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার উপরে সদ্য প্রয়াত হয়েছেন ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের সচিব অর্ণব রায়। এখানেই ওই দফতরে প্রশাসনিক সঙ্কট তৈরি হয়েছে। ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের কাজ কীভাবে চলবে, তাই নিয়ে সবাই চিন্তিত। সে কারণে তড়িঘড়ি রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের উপরে ক্রেতা সুরক্ষা দফতরের অতিরিক্ত দায়িত্ব বর্তেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্য দিকে, আপাতত দফতরবিহীন মন্ত্রী হয়েই থাকবেন সাধন পান্ডে।

প্রসঙ্গত, ২০ জুলাইয়ের রাতে হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন সাধনবাবু। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভরতি করানো হয়। তারপর থেকে টানা ভেন্টিলেশনে ছিলেন তিনি। বেশ কয়েক দিন ধরে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ার পর সম্প্রতি তাঁকে ভেন্টিলেশন থেকে বের করে আনা হয়।

 

আপাতত অনেকটাই সুস্থ রয়েছেন সাধনবাবু। তবে এখনও তাঁর কথায় জড়তা কাটেনি। সেকারণে এখনও স্বাভাবিকভাবে কথা বলতে পারছি না-‌তিনি। এই অবস্থায় পঞ্চায়েত দফতরের কাজ যাতে স্তব্ধ না হয়ে পড়ে, সেইজন্যই এই উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য সরকার। সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের উপরেই ক্রেতাসুরক্ষা দফতরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। 

সোমবার থেকেই সুব্রতবাবু ক্রেতা সুরক্ষা দফতরে গিয়ে দায়িত্বভার গ্রহণ করবেন বলে জানা গিয়েছে। সাধানবাবু সুস্থ হওয়ার পর তার পরবর্তী পদক্ষেপ কি হবে, তা সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য। অবশ্য সেই বিষয়ে এখনও স্পষ্ট করা হয়নি। তবে আপাতত দফতরবিহীন মন্ত্রী হিসাবেই থাকছেন অসুস্থ সাধন পান্ডে।

 

 

বন্ধ করুন