বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > তোলাবাজ সম্প্রদায় ভস্মাসুর হয়ে তৃণমূলকে তাড়া করেছে, কাদের ইঙ্গিত করলেন সুকান্ত?
সুকান্ত মজুমদার। নিজস্ব ছবি।

তোলাবাজ সম্প্রদায় ভস্মাসুর হয়ে তৃণমূলকে তাড়া করেছে, কাদের ইঙ্গিত করলেন সুকান্ত?

  • এদিন সুকান্তবাবু সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘এই চিঠি রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির নগ্ন চেহারাটা দেখিয়ে দিল। একজন বিধায়ক এরাজ্যে নিরাপত্তার অভাবে ভুগছেন। যে বিধায়ক কিছুদিন আগেই ব্যাপক সন্ত্রাস করে ভোটে জিতেছেন’।

রাজ্যের বিশেষ সম্প্রদায়কে ভস্মাসুরে পরিণত করেছে তৃণমূল। আর সেই ভস্মাসুর এখন তৃণমূলের নেতাদের তাড়া করেছে। পুলিশের কাছে বাড়তি নিরাপত্তা চেয়ে বাসন্তীর তৃণমূল বিধায়ক শ্যামল মণ্ডলের চিঠিতে এমনই প্রতিক্রিয়া দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। পুলিশকে দেওয়া ওই চিঠিতে অন্তত ২ জন নিরাপত্তারক্ষী বাড়ানোর দাবি করেছেন শ্যামলবাবু।

এদিন সুকান্তবাবু সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘এই চিঠি রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির নগ্ন চেহারাটা দেখিয়ে দিল। একজন বিধায়ক এরাজ্যে নিরাপত্তার অভাবে ভুগছেন। যে বিধায়ক কিছুদিন আগেই ব্যাপক সন্ত্রাস করে ভোটে জিতেছেন’।

এর পরই চাঞ্চল্যকর দাবি করে বিজেপির রাজ্য সভাপতির দাবি, ‘ইংরাজিতে ফ্রাঙ্কেনস্টাইন বলে একটা শব্দ আছে। বাংলায় বলে ভস্মাসুর। তৃণমূল কংগ্রেস এই বিশেষ সম্প্রদায়কে তৈরি করেছে, যারা তোলাবাজ সম্প্রদায়। সেই ভস্মাসুর এখন তৃণমূল কংগ্রেসকে বা তৃণমূল কংগ্রেসের কিছু নেতাকে তাড়া করেছে’।

প্রাণনাশের আশঙ্কা প্রকাশ করে নিজের নিরাপত্তা বৃদ্ধির দাবিতে পুলিশকে চিঠি দিয়েছেন বাসন্তীর তৃণমূল বিধায়ক শ্যামলবাবু। তাঁর দাবি, মানুষের কাজে বিভিন্ন জায়গায় যেতে হয় তাঁকে। ওদিকে তাঁকে লাগাতার হুমকি দিচ্ছে তোলাবাজ ও মাটি মাফিয়ারা। যার জেরে নিরাপত্তার অভাবে ভুগছেন তিনি। পুলিশের তরফে যেন তাঁকে ২ জন বাড়তি নিরাপত্তারক্ষী দেওয়া হয়।

বলে রাখি, বর্তমানে শ্যামলবাবু ৩ জন নিরাপত্তা রক্ষী পান। বছরকয়েক আগে পর্যন্ত তাঁর ৬ জন নিরাপত্তারক্ষী ছিল। নিরাপত্তার পুরনো বহর ফিরে পেতে তাঁর চিঠিতে যে সরকারের অস্বস্তি বাড়তে পারে তা বোধ হয় ঠাহর করে উঠতে পারেননি তিনি।

 

বন্ধ করুন