বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > পশ্চিমবঙ্গ থেকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রাজ্যসভায় গেলেন অসমের মেয়ে সুস্মিতা দেব
জিতলেন সুস্মিতা দেব
জিতলেন সুস্মিতা দেব

পশ্চিমবঙ্গ থেকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রাজ্যসভায় গেলেন অসমের মেয়ে সুস্মিতা দেব

  • এদিন সুস্মিতা বলেন, ‘সবাই বুঝতে পারছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই একমাত্র মুখ যিনি বিজেপির বিরুদ্ধে লড়তে পারেন। কংগ্রেস কেন পারল না তা ভাবতে হবে।’

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পশ্চিমবঙ্গ থেকে তৃণমূলের টিকিটে রাজ্যসভার সদস্য নির্বাচিত হলেন অসমের কন্যা সুস্মিতা দেব। সোমবার তাঁর হাতে বিজয়ীর শংসাপত্র তুলে দেন পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যসভায় পশ্চিমবঙ্গ ও উত্তর-পূর্ব ভারতের দাবি দাওয়া তুলে ধরবেন বলে জানিয়েছেন সুস্মিতা।

গত জুলাইয়ে কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেন সুস্মিতা দেব। তার পরই তাঁকে রাজ্যসভায় পাঠানোর ব্যাপারে ভাবনাচিন্তা শুরু করে তৃণমূল। মানস ভুঁইয়ার খালি হওয়া আসনে তাঁকে টিকিট দেয় দল। উলটো দিকে কোনও প্রার্থী দেয়নি বিজেপি। ফলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়ে রাজ্যসভায় গেলেন সুস্মিতা।

 

এদিন বিজয়ীর শংসাপত্র হাতে নিয়ে সুস্মিতা বলেন, ‘দীর্ঘদিন রাজনীতি করছি। পশ্চিমবঙ্গের সাংসদ নির্বাচিত হয়ে ভালো লাগছে। দল যা করতে বলবে তাই করবো। সংসদে বিজেপি বিরোধিতা আরও শক্তিশালী হলো।’

এদিন সুস্মিতা বলেন, ‘সবাই বুঝতে পারছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই একমাত্র মুখ যিনি বিজেপির বিরুদ্ধে লড়তে পারেন। কংগ্রেস কেন পারল না তা ভাবতে হবে।’

অসম ও ত্রিপুরায় দলকে শক্ত করতে সুস্মিতা দেবের ওপরেই ভরসা রাখছে তৃণমূল। তাঁর হাত ধরেই বিকল্প শক্তি হিসাবে উত্তর-পূর্বে ছড়িয়ে যেতে চায় শাসকদল। রাজ্যসভার সাংসদ নির্বাচিত হয়েই মোদী বিরোধিতায় সুর চড়িয়েছেন সুস্মিতা। তিনি বলেন, ‘মোদী সরকার বিরোধিতার পরিসর সংকীর্ণ করে আনছে। সংসদে কোনও বিল আর স্ট্যান্ডিং কমিটিতে যায় না। বিল নিয়ে ঠিক মতো বিতর্ক হয় না।’ তবে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের বিরুদ্ধে একই রকম অভিযোগ নিয়ে মুখ খোলেননি তিনি।

 

বন্ধ করুন