বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কোচবিহারের প্রাক্তন পুলিশ সুপারকে তলব সিআইডি’‌র, হাজিরা দিতে হবে ১৮ জুন

কোচবিহারের প্রাক্তন পুলিশ সুপারকে তলব সিআইডি’‌র, হাজিরা দিতে হবে ১৮ জুন

গত ১০ মার্চ শীতলকুচির ১২৬ নম্বর বুথের সামনে কেন্দ্রীয় বাহিনী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

১৮ জুন সকাল সাড়ে ১১টা নাগাদ তাঁকে ভবানী ভবনে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে।

সোমবার শীতলকুচি কাণ্ডে নয়া মোড় নিল। কারণ কোচবিহারের সাসপেন্ড হওয়া পুলিশ সুপারকে তলব করল সিআইডি। এই পুলিশ সুপার দেবাশীষ ধরকে আগামী ১৮ জুন তলব করা হয়েছে। শীতলকুচিতে যখন কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে চারজন প্রাণ হারিয়েছেন তখন তিনিই পুলিশ সুপারের পদে ছিলেন। ১৮ জুন সকাল সাড়ে ১১টা নাগাদ তাঁকে ভবানী ভবনে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। আগেই দেবাশীষ ধরকে সাসপেন্ড করা হয়েছে।

সম্প্রতি শীতলকুচিতে গিয়েছিল সিআইডি’‌র ফরেনসিক ব্যালেস্টিক টিম। তাঁরা নানা নমুনা সংগ্রহ করেছিলেন। সেই নমুনা সংগ্রহের পরই প্রাক্তন সাসপেন্ড হওয়া পুলিশ সুপার দেবাশীষ ধরকে সমন পাঠিয়ে তলব করা তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে। কারণ এই জেরা–পর্বে অনেক প্রশ্নেরই উত্তর দিতে হবে এই পুলিশ কর্তাকে। ভোট–চতুর্থীতে ১০ এপ্রিল কোচবিহারের শীতলকুচিতে গুলি চালানোর ঘটনা ঘটে। গুলিতে চারজনের মৃত্যু হয়। অভিযোগ ওঠে, কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে। পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন ওঠে। সেই সময় কোচবিহারের পুলিশ সুপার ছিলেন দেবশীষ ধর। তিনি জানিয়েছিলেন, আত্মরক্ষার্থে গুলি চালানো হয়। ইতিমধ্যে শীতলকুচি কাণ্ডের তদন্ত শুরু করেছে সিআইডি।

নির্বাচনী সভায় তখনই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হবে। ক্ষমতায় এসেই তিনি তদন্তের নির্দেশ দেন। তাতেই শোরগোল পড়ে যায়। কারণ কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের তলব করা হয়েছিল। এবার সাসপেন্ড পুলিশ সুপারকেও তলব করা হল। সূত্রের খবর, ওই ঘটনার পূঙ্খানুপূঙ্খ তথ্য পেতেই এবার দেবাশীষ ধরকে তলব করেছেন গোয়েন্দারা।

বন্ধ করুন