বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বিধানসভায় শুভেন্দুদের সাসপেনশন প্রত্যাহার করলেন স্পিকার
বিধানসভায় বিজেপি বিধায়কদের অবস্থান। (PTI)

বিধানসভায় শুভেন্দুদের সাসপেনশন প্রত্যাহার করলেন স্পিকার

  • এদিন দুপুরে বিধানসভার বিজনেস অ্যাডভাইজারি কমিটির বৈঠকে বিজেপি বিধায়কদের সাসপেনশন প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নয়। সাসপেনশন প্রত্যাহারের পক্ষে মত দেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের মতো বরিষ্ঠ মন্ত্রীরা।

অবশেষে বিজেপির ৭ বিধায়কের সাসপেনশন প্রত্যাহার হল। বৃহস্পতিবার দুপুরে বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পালের উত্থাপিত প্রস্তাবের ভিত্তিতে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী, মুখ্যসচেতক মনোজ টিগ্গাসহ ৭ জনের সাসপেনশন প্রত্যাহার করেন স্পিকার। এর ফলে বিধানসভায় যে অচলাবস্থা তৈরি হয়েছিল তার অবসান হল।

এদিন দুপুরে বিধানসভার বিজনেস অ্যাডভাইজারি কমিটির বৈঠকে বিজেপি বিধায়কদের সাসপেনশন প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নয়। সাসপেনশন প্রত্যাহারের পক্ষে মত দেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের মতো বরিষ্ঠ মন্ত্রীরা। এর পর বিধানসভায় সাসপেনশন প্রত্যাহারের প্রস্তাব আনের বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পাল।

সেই প্রস্তাব নিয়ে আলোচনার সময় পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘সঠিক পদ্ধতি মেনে আবেদন করলে বহু আগেই এই সমস্যার সমাধান হতে পারত। এজন্য বিধানসভার বাইরে কোথাও আবেদন করার প্রয়োজন ছিল না। আমরা চাই বিরোধীরা বিধানসভায় থাক। কিন্তু বিধানসভার গরিমা রক্ষাও বিরোধীদের কর্তব্য। তারা যেন এমন কাজ না করেন যাতে বিধানসভার গরিমা ক্ষুণ্ণ হয়।’

সাসপেনশন প্রত্যাহারের পর বিজেপির মুখ্য সচেতক মনোজ টিগ্গা বলেন, আদালতে ভর্ৎসনার মুখে পড়ে সাসপেনশন প্রত্যাহার করতে বাধ্য হয়েছেন স্পিকার।

গত মার্চ মাসে ৭ বিজেপি বিধায়ককে সাসপেন্ড করেছিলেন স্পিকার। সেই থেকে চলছে শাসক – বিরোধী টানাপোড়েন।

 

বন্ধ করুন