বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > প্রধানমন্ত্রী সঙ্গে বৈঠক নিয়েও রাজনীতি করছেন, এটাই ওর স্বভাব: মমতাকে শুভেন্দু
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শুভেন্দু অধিকারী। (ছবি সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস এবং এএনআই)
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শুভেন্দু অধিকারী। (ছবি সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস এবং এএনআই)

প্রধানমন্ত্রী সঙ্গে বৈঠক নিয়েও রাজনীতি করছেন, এটাই ওর স্বভাব: মমতাকে শুভেন্দু

  • শুভেন্দু আরও লেখেন, ‘গত কয়েকমাসে প্রধানমন্ত্রী করোনা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে একাধিক বৈঠক করেছেন। তার কটায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত ছিলেন?

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে যোগ দিয়েও বক্তব্য রাখার সুযোগ না পাওয়ায় ‘অপমানিত’ মুখ্যমন্ত্রীর সমালোচনায় মুখর হলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। বৃহস্পতিবার মমতাকে টুইটে বেঁধেন তিনি। বলেন, ‘স্বভাবসিদ্ধ ঢঙে প্রধানমন্ত্রী সঙ্গে বৈঠকেরও রাজনীতিকরণ করেছেন তিনি।’

এদিন শুভেন্দু টুইটে লেখেন, ‘মাননীয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশাসন চালানোয় অরুচি আজ ফের প্রমাণিত হলো। স্বভাবসিদ্ধভাবে এদিনও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের রাজনীতিকরণ করলেন তিনি। এদিনের বৈঠক ছিল জেলাশাসকদের সঙ্গে। মুখ্যমন্ত্রীদেরও সেখানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।’

শুভেন্দু আরও লেখেন, ‘গত কয়েকমাসে প্রধানমন্ত্রী করোনা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে একাধিক বৈঠক করেছেন। তার কটায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত ছিলেন? জবাব হল ‘শূন্য’। এখন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জেলাশাসকের বৈঠকে তাঁকে কেন বলতে দেওয়া হল না তা নিয়ে হইচই শুরু করেছেন।’

রাজ্যের বিরোধী দলনেতার দাবি, ‘এদিনের বৈঠকে যে ৭ জন জেলাশাসক বলার সুযোগ পেয়েছেন তাদের মধ্যে ৫ জনই অবিজেপিশাসিত রাজ্য ছত্তিসগড়, কেরল, মহারাষ্ট্র, রাজস্থান ও অন্ধ্র প্রদেশের। সহযোগিতামূলক যুক্তরাষ্ট্রীয় ব্যবস্থায় বিশ্বাস করেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিশ্বাস করেন দ্বন্দমূলক যুক্তরাষ্ট্রীয় ব্যবস্থায়।’

 

বন্ধ করুন