বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Suvendu Adhikari on Changing names of places: 'ক্ষমতায় এলে ব্রিটিশ ও মুঘলদের নাম সব জায়গা থেকে মুছে দেব', দাবি শুভেন্দুর

Suvendu Adhikari on Changing names of places: 'ক্ষমতায় এলে ব্রিটিশ ও মুঘলদের নাম সব জায়গা থেকে মুছে দেব', দাবি শুভেন্দুর

বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী  (PTI)

শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘মুঘলরা অনেক হিন্দুকে হত্যা করেছে এবং মন্দির ধ্বংস করেছে। তাদের নামে নামাঙ্কিত সব জায়গার নাম পরিবর্তন করতে হবে। বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় এলে আমরা এক সপ্তাহের মধ্যে ব্রিটিশ ও মুঘলদের নাম সব জায়গা থেকে মুছে দেব।’

রাষ্ট্রপতি ভবনের মুঘল গার্ডেনের নাম পালটে গিয়ে 'অমৃত উদ্যান' হয়েছে। আর এরই মধ্যে এবার পশ্চিমবঙ্গের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী হুঁশিয়ারি দিলেন, বঙ্গে বিজেপি ক্ষমতায় এলে এমন সব জায়গার নাম বদল করা হবে, যেগুলি ব্রিটিশ কিংবা মুঘল। সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘মুঘলরা অনেক হিন্দুকে হত্যা করেছে এবং মন্দির ধ্বংস করেছে। তাদের নামে নামাঙ্কিত সব জায়গার নাম পরিবর্তন করতে হবে। বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় এলে আমরা এক সপ্তাহের মধ্যে ব্রিটিশ ও মুঘলদের নাম সব জায়গা থেকে মুছে দেব।’ তাঁর কথায়, 'মুঘলদের নাম ও চিহ্ন সব জায়গা থেকে উপড়ে ফেলা হবে।'

এর আগে শনিবারের সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়, 'স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে আজাদি কা অমৃত মহোৎসব পালিত হচ্ছে। সেই উৎসবের অধীনেই রাষ্ট্রপতি ভবনের বাগানের নতুন নামকরণ করবেন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু। বাগানের নতুন নাম হবে অমৃত উদ্যান।' উল্লেখ্য, এর আগে গত বছরই কেন্দ্রীয় সরকার দিল্লির রাজপথের নাম বদলে কর্তব্যপথ করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেবার কেন্দ্রের দাবি ছিল, 'রাজপথ' নামটির সঙ্গে ঔপনিবেশিক মানসিকতা জড়িয়ে রয়েছে। সেই কারণেই এই বদল।

আগামী ৩১ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতি ভবনের বাগান আমজনতার জন্য খুলে দেওয়া হলে তাঁরা টিউলিপের ১২টি বিরল প্রজাতি দেখতে পাবেন। এই আবহে রাষ্ট্রপতি ভবনের তরফে বিবৃতি প্রকাশ করে বলা হয়, 'রাষ্ট্রপতি ভবনের উদ্যানে উদ্ভিদের অসংখ্য প্রজাতি রয়েছে। পূর্ব দিকের লন, মাঝের লন, লম্বা বাগান এবং গোলাকার বাগানে সেগুলি রয়েছে। ডঃ এপিজে আবদুল কালাম এবং রামনাথ কোবিন্দ যখন রাষ্ট্রপতি ছিলেন তখন এই বাগানের বহর আরও বেড়েছে। ভেষজ-১, ভেষজ-২, বনসাই উদ্যান এবং আরোগ্য বন যুক্ত হয়েছে এই বাগানে। আগামী ৩১ জানয়ারি থেকে 26 মার্চ পর্যন্ত বাগানগুলিতে প্রবেশ করা যাবে। ওই সময়ের মধ্য়ে বাগান বন্ধ থাকবে শুধুমাত্র প্রতি সোমবার। এছাড়া, আগামী ৮ মার্চ হোলি উপলক্ষেও বাগান বন্ধ রাখা হবে।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন