বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পে ৩ কোটি মহিলাকে বঞ্চিত করছে রাজ্য, দাবি শুভেন্দুর
শুভেন্দু অধিকারী। ফাইল ছবি
শুভেন্দু অধিকারী। ফাইল ছবি

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পে ৩ কোটি মহিলাকে বঞ্চিত করছে রাজ্য, দাবি শুভেন্দুর

  • তাঁর দাবি, রাজ্যে মোট মহিলার সংখ্যা প্রায় ৫ কোটি। তার মধ্যে স্বাস্থ্যসাথী কার্ডধারী ৩.৬ কোটি মহিলাকে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের আওতায় আনতে গেলে মাসে ১,৬০০ – ১,৭০০ কোটি টাকা খরচ হবে।

রাজ্যের লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পে বঞ্চনার অভিযোগ তুলে সরব হলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। বৃহস্পতিবার বিজেপির রাজ্য সদর দফতরে সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন, নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি মানেনি তৃণমূল সরকার। রাজ্যের ৩ কোটি মহিলাকে বঞ্চিত করছে তারা।

এদিন শুভেন্দু অধিকারী বলেন, আমরা কোনও জনকল্যাণমুখি প্রকল্পের বিরোধী নই। কিন্তু ঋণ নিয়ে নয়, রাজস্ব বাড়িয়ে টাকা দিক সরকার।

তাঁর দাবি, নির্বাচনী ইস্তেহারে রাজ্যের সমস্ত মহিলাকে সামাজিক সুরক্ষা প্রকল্পের আওতায় আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তৃণমূল। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে রাজ্যের মাত্র ২ কোটির সামান্য বেশি মহিলাকে এই প্রকল্পের আওতায় আনা হচ্ছে।

তাঁর দাবি, রাজ্যে মোট মহিলার সংখ্যা প্রায় ৫ কোটি। তার মধ্যে স্বাস্থ্যসাথী কার্ডধারী ৩.৬ কোটি মহিলাকে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের আওতায় আনতে গেলে মাসে ১,৬০০ – ১,৭০০ কোটি টাকা খরচ হবে। তাই তার থেকে আশাকর্মী - ICDS কর্মীদের বাদ দেওয়া হয়েছে। ফলে প্রকল্পের সুবিধাভোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটির কিছু বেশি। এতে রাজ্যের মাসে খরচ হবে ১,৩০০ কোটি টাকার কিছু বেশি। শুভেন্দুবাবুর প্রশ্ন, নির্বাচনী ইস্তেহারে তো সেসব কথা বলেনি তৃণমূল? তখন তো সবাইকে টাকা দেওয়া হবে বলেছিল। তাহলে এখন বাছবিচার হচ্ছে কেন?

শুভেন্দুবাবু বলেন, রাজ্যের ঋণের পরিমাণ ৪.৫ লক্ষ কোটি ছাড়িয়েছে। এই পরিস্থিতিতে এই প্রকল্প চালাতে গেলে আরও ঋণ নিতে হবে রাজ্য সরকারকে। খরচ বাঁচাতে এর পর ১০০ দিনের কাজের জবকার্ডধারীদেরও প্রকল্প থেকে বাদ দিতে পারে সরকার।

তাঁর দাবি, নির্বাচনে জিতে একের পর এক প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করেছে রাজ্য সরকার। ক্ষমতায় ফিরে টিকা কিনে সমস্ত রাজ্যবাসীকে বিনামূল্যে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিল তৃণমূল। কিন্তু এখনো পর্যন্ত মাত্র ১৮ লক্ষ টিকা কিনেছে তারা।

 

বন্ধ করুন