বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাংলার মানুষকে কথা দিলাম, দলত্যাগীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব: শুভেন্দু
সাংবাদিক সম্মেলনে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। ফাইল ছবি
সাংবাদিক সম্মেলনে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। ফাইল ছবি

বাংলার মানুষকে কথা দিলাম, দলত্যাগীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব: শুভেন্দু

  • এর পরই শুভেন্দুর হুঁশিয়ারি, ‘মুকুল রায়ের মতো এদের বিরুদ্ধে দলত্যাগবিরোধী আইনকে কাজে লাগাবো। তন্ময় আবগারি, রেশনের ব্যবসা বাঁচাতে এই কাজ করেছে। বিশ্বজিতকেও একইভাবে নোটিশ দিয়েছি’।

পর পর ২ দিন বিজেপির ২ বিধায়কের তৃণমূলে যোগদানের পর শাসকদলকে আক্রমণ শানালেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। সঙ্গে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন, দলত্যাগবিরোধী আইন প্রয়োগের নজির গড়বেন তিনি।

এদিন দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে পাশে বসিয়ে শুভেন্দু বলেন, ‘২১৩ আসন জিতেও তৃণমূলের আরও বিধায়ক দরকার। দলের সঙ্গে যোগাযোগহীন দুই বিধায়ককে যোগ দিয়েছেন। দলত্যাগ বিরোধী আইনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে একটা কর্পোরেট অফিসে পরিষদীয় মন্ত্রী এক বিধায়ককে অন্য দলের পতাকা তুলে দিলেন’।

এর পরই শুভেন্দুর হুঁশিয়ারি, ‘মুকুল রায়ের মতো এদের বিরুদ্ধে দলত্যাগবিরোধী আইনকে কাজে লাগাবো। তন্ময় আবগারি, রেশনের ব্যবসা বাঁচাতে এই কাজ করেছে। বিশ্বজিতকেও একইভাবে নোটিশ দিয়েছি’।

শুভেন্দু বলেন, ‘গত ১০ বছরে ৫০-এর বেশি বিধায়ক দল পরিবর্তন করেছেন। কংগ্রেস এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি। আমরা নেব। বাংলার মানুষকে কথা দিলাম। তিন মাসের মধ্যে অধ্যক্ষ সিদ্ধান্ত জানাতে বাধ্য। ফলে এবার ওসব হবে না।আমাকে রাজ্য সভাপতি সহ দল দলত্যাগ বিরোধী আইনকে বলবৎ করার দায়িত্ব দিয়েছেন। পদত্যাগ না করে দলদবলের প্রবণতা বন্ধ করতে আমরা নজির তৈরি করব’।

বিরোধী দলনেতার সাফাই, ‘যে দুজন গেছেন তারা ৪ মাস আমাদের থেকে আলাদা ছিলেন। বাকিরা পার্টির কাজই করছেন। আমি আশা করি, বাকি কেউ যাবে না’।

 

বন্ধ করুন