বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মিথ্যা মামলায় ফাঁসাতে পারে পুলিশ:‌ আগেভাগে রাজ্যপালকে চিঠি দিয়ে জানালেন শুভেন্দু
শুভেন্দু অধিকারী ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ফাইল ছবি
শুভেন্দু অধিকারী ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ফাইল ছবি

মিথ্যা মামলায় ফাঁসাতে পারে পুলিশ:‌ আগেভাগে রাজ্যপালকে চিঠি দিয়ে জানালেন শুভেন্দু

  • ওই চিঠি টুইট করে রাজ্যপাল লিখেছেন, ‘‌রাজনৈতিক প্রতিহিংসা থেকে শুভেন্দু অধিকারী ও তাঁর অনুগামীদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে। এই মর্মে অভিযোগ করে তিনি আমার হস্তক্ষেপ চেয়েছেন। আমি এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় সমস্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’‌

বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর একেবারে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের দ্বারস্থ হলেন শুভেন্দু অধিকারী। না, সশরীরে নয়। তিনি চিঠি পাঠিয়েছেন রাজ্যপালকে। তাতে শুভেন্দু অভিযোগ করে জানিয়েছেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হতে পারেন তিনি এবং তাঁর অনুগামীরা। তাঁদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ‘‌পদক্ষেপ’‌ নিতে পারে কলকাতা ও রাজ্য পুলিশ। এমনকী মিথ্যা মামলাতেও নাম জড়াতে পারে তাঁদের। আর সবটাই রাজনৈতিক ইন্ধনের জেরে হতে পারে।

কাকতালীয়ভাবে, রাজ্য পুলিশ–প্রশাসনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় দলীয় নেতাকর্মীদের ফাঁসানোর অভিযোগ বরবারই তুলে এসেছে বিজেপি। এবং রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব একাধিকবার এ নিয়ে রাজ্যপালের কাছে দরবার করেছেন। এবার বিধায়ক পদ ছাড়ার পরই একই পদক্ষেপ করতে দেখা গেল শুভেন্দু অধিকারীকে। এই পরিস্থিতিতে যাতে রাজ্যপাল হস্তক্ষেপ করেন সেই আবেদেনও জানিয়েছেন শুভেন্দু।

রাজ্যপালকে দেওয়া শুভেন্দুর চিঠি। ছবি সৌজন্য : টুইটার
রাজ্যপালকে দেওয়া শুভেন্দুর চিঠি। ছবি সৌজন্য : টুইটার

এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করবেন বলে এদিন জানিয়েছেন রাজ্যপাল। শুভেন্দুর দেওয়া ওই চিঠি টুইট করে জগদীপ ধনখড় লিখেছেন, ‘‌রাজনৈতিক প্রতিহিংসা থেকে শুভেন্দু অধিকারী ও তাঁর অনুগামীদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে। এই মর্মে অভিযোগ করে তিনি আমার হস্তক্ষেপ চেয়েছেন। আমি এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় সমস্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’‌

চিঠিতে শুভেন্দুর অভিযোগ, মন্ত্রিত্ব ছাড়ার পরই আমার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসাজনিত কিছু পদক্ষেপ করা হচ্ছে। যেভাবে আমার অনুগামীদের ভুয়ো মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে তাতে পরিষ্কার যে এই রাজ্যে আইনের শাসন অনুপস্থিত। এ সব কাজকর্ম সংবিধান–বিরোধী। আর এর নেপথ্যে রয়েছে সরকার ও প্রশাসনের শীর্ষ আধিকারিকরাই।

বন্ধ করুন