বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাংলায় নেই ‘সখী সেন্টার,’ উদাসীন রাজ্য, দাবি শ্রীরূপার, পালটা দাবি শশীর
 শ্রীরূপা মিত্র চৌধুরী, বিজেপি বিধায়ক (ফাইল ছবি)
 শ্রীরূপা মিত্র চৌধুরী, বিজেপি বিধায়ক (ফাইল ছবি)

বাংলায় নেই ‘সখী সেন্টার,’ উদাসীন রাজ্য, দাবি শ্রীরূপার, পালটা দাবি শশীর

  • যে কোনও ধরনের নির্যাতনের শিকার হওয়ার পর যে কোনও বয়সের মহিলা এই সেন্টারে গিয়ে সহায়তা চাইতে পারেন।

নির্ভয়া ফান্ডের টাকায় নির্যাতিতাদের সহায়তার জন্য সখী সেন্টার বা ওয়ান স্টপ সেন্টার। যে কোনও ধরনের নির্যাতনের শিকার হওয়ার পর যে কোনও বয়সের মহিলা এই সেন্টারে গিয়ে সহায়তা চাইতে পারেন। সেই নির্যাতিতার আশ্রয়, তাঁকে বিনামূল্যে আইনী সহায়তা, তাঁর কাউন্সেলিং সহ যাবতীয় সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য দেশ ব্যাপী সখী সেন্টারকে বাস্তবায়িত করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল। এদিকে পরিসংখ্যান বলছে, পূর্ব ও উত্তরপূর্ব ভারতের প্রায় সর্বত্র এই ধরনের সেন্টার তৈরি হলেও বাংলায় এখনও এই ধরনের একটি সেন্টারও নেই বলে অভিযোগ।  ইংরেজবাজারের বিজেপি বিধায়ক শ্রীরূপা মিত্র চৌধুরীর অভিযোগ কেন্দ্রীয় সরকারের নির্ভয়া ফান্ডের টাকায় বাংলায় ২৩টি জেলার জন্য ২৩টি সখী সেন্টার বা ওয়ান স্টপ সেন্টারের অনুমোদন মিলেছে। কিন্তু বাস্তবে একটিও কেন্দ্র এখনও তৈরি হয়নি। 

আর এনিয়েই রাজ্যের বিরুদ্ধে কার্যত উদাসীনতার অভিযোগ তুলেছেন বিজেপি বিধায়ক। তিনি বলেন, ‘এব্যাপারে রাজ্য সরকারের উদাসীনতা অবাক করার মতো। অবিলম্বে যেন সরকার ২৩টি ওয়ান স্টপ সেন্টার তৈরি করে ও মহিলাদের নিরাপত্তার বিষয়টি সুনিশ্চিত করে।’ তবে  নারী ও শিশু কল্যাণমন্ত্রী শশী পাঁজা অবশ্য পালটা যুক্তি দিয়েছেন। তাঁর দাবি, ‘মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন অ্যাসিড হামলার মুখে পড়া বা যৌন হেনস্থার শিকার হওয়া কোনও মহিলাকে কোনও হাসপাতাল ফেরাতে পারবে না। তাদের বিনামূল্যে চিকিৎসা করতে হবে।’ নির্যাতিতাতের সহায়তার জন্য় রাজ্যের বিশেষ তহবিলের কথাও উল্লেখ করেন মন্ত্রী। তাছাড়া বিকল্প আঙ্গিকে নির্যাতিতাদের পাশে রাজ্য সরকার রয়েছে বলেও দাবি শশী পাঁজার।   

 

বন্ধ করুন