বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌মিঠুনকে নিয়ে এলেও কোনও পার্থক্য হবে না’‌, কড়া চ্যালেঞ্জ ছুঁড়লেন ফিরহাদ হাকিম

‘‌মিঠুনকে নিয়ে এলেও কোনও পার্থক্য হবে না’‌, কড়া চ্যালেঞ্জ ছুঁড়লেন ফিরহাদ হাকিম

ফিরহাদ হাকিম।

একুশের নির্বাচনে হার শুরু হয়েছিল। তারপর বাংলায় যতগুলি নির্বাচন হয়েছে একটিও জিততে পারেনি বিজেপি। একুশের নির্বাচনে তারকা প্রচারক হিসাবে ছিল মিঠুন। তাতে তেমন কোনও প্রভাব পড়েনি। কিছু আসন বেড়েছে। ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে মিঠুনকে প্রচারক হিসাবে নামানো হবে। তাতে কোনও পার্থক্য হবে না বলে মনে করেন ফিরহাদ।

আবার বিজেপি রাজনীতির ময়দানে নামাতে চলেছে বিশিষ্ট অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীকে। সোমবার ঝটিকা সফরে কলকাতায় এসে রাজ্য দফতরে যান ফাটাকেষ্ট। সেখান থেকে তিনি প্রচারের দায়িত্ব নেন। আরও জোরালো প্রচার করবেন বলে জানান মহাগুরু। তারপর আজ, মঙ্গলবার মিঠুন চক্রবর্তীকে পরমাণু বোমার সঙ্গে তুলনা করলেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। সেটাকেই পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন ফিরহাদ হাকিম।

ঠিক কী বলেছেন কলকাতার মেয়র?‌ এই বিষয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে সংবাদমাধ্যমে তিনি বলেন, ‘‌বিজেপি এখন তলানিতে এসে ঠেকেছে। বিজেপি ভাববে অমিত শাহকে নিয়ে তারা উদ্ধার হয়ে যাবে। আবার ভাবে নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে উদ্ধার হয়ে যাবে। এমনকী যোগী আদিত্যনাথকে নিয়ে বিজেপি উদ্ধার হয়ে যাবে। এখন ভাবছে মিঠুন চক্রবর্তীকে নিয়ে উদ্ধার হয়ে যাবে। বিজেপির সঙ্গে মানুষের সমর্থন নেই। মিঠুন চক্রবর্তীকে আনুক আর যাকেই নিয়ে আসুক কোন পার্থক্য হবে না।’‌

ঠিক কী বলেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি?‌ মিঠুন চক্রবর্তীকে নিয়ে এসে মরা সংগঠনের গাঙে হাওয়া দেওয়া যাবে বলে মনে করে বিজেপি। এই বিষয়ে বিজেপির বালুরঘাটের সাংসদ বলেন, ‘‌মিঠুনদা হেভিওয়েট প্রচারক। ইংরেজিতে যাকে স্টার ক্যাম্পেনার বলি আমরা। স্বাভাবিকভাবেই সেই অস্ত্রকে নির্দিষ্ট জায়গায় ব্যবহার করা হবে। যুদ্ধে সবসময় তো পরমাণু বোমা ব্যবহার করা হয় না। আগে ছোটখাটো হ্যান্ড গ্রেনেড ব্যবহার করা হয়। যখন পরমাণু বোমার প্রয়োজন হবে, আমরা চার্জ করব।’‌

উল্লেখ্য, একুশের নির্বাচনে হার শুরু হয়েছিল। তারপর বাংলায় যতগুলি নির্বাচন হয়েছে একটিও জিততে পারেনি বিজেপি। একুশের নির্বাচনে তারকা প্রচারক হিসাবে দেখা গিয়েছিল মিঠুন চক্রবর্তীকে। তাতে তেমন কোনও বিরাট প্রভাব পড়েনি। কিছু আসন বেড়েছে ঠিকই। এবার ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে মিঠুনকে ফের প্রচারক হিসাবে নামানো হবে। আর তাতে কোনও পার্থক্য হবে না বলে মনে করেন ফিরহাদ হাকিম।

বন্ধ করুন