বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > স্বৈরাচারী সরকার সবার মুখ বন্ধ করার চেষ্টা করছে: দিলীপ ঘোষ
দিলীপ ঘোষ। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
দিলীপ ঘোষ। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

স্বৈরাচারী সরকার সবার মুখ বন্ধ করার চেষ্টা করছে: দিলীপ ঘোষ

  • দিলীপবাবু আরও বলেন, ‘মিডিয়ার লোকেরা সরকারের সমালোচনা করলে রাত একটা সময় তাকে তুলে আনা হচ্ছে, ভয় দেখানো হচ্ছে। যাতে কেউ সমালোচনা না করে। যা ইচ্ছা করতে পারেন।

মাঝরাতে শিক্ষক নেতা মইদুল ইসলামকে গ্রেফতারির চেষ্টায় তীব্র প্রতিক্রিয়া জানালেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। শুক্রবার সকালে নিউ টাউনে ইকো পার্কে প্রার্তর্ভ্রমণ সেরে তিনি এই ঘটনায় সরকারের মুন্ডুপাত করেন। তাঁর কথায়, ‘এই স্বেচ্ছাচারী সরকার কারও কথা শুনতে রাজি নয়।’

এদিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘বলার কিছু নেই। এই সরকার স্বেচ্ছাচারী মনোভাব নিয়ে কাজ করছে। কারও কথা শুনতে রাজি নয় তারা। কর্মচারীরা সব দিক থেকে বঞ্চিত। তারা বিক্ষোভ আন্দোলনের মাধ্যমে নিজের বক্তব্য তুলে ধরেছেন। একই আন্দোলন বিশ্ব ভারতীতে হলে এই সরকার সমর্থন করছে। শিক্ষক, কর্মচারী আর পুলিশের লোকেরা যদি আন্দোলন করে তখন তাদের ট্রান্সফার করা হচ্ছে, ভয় দেখানো হচ্ছে। পুলিশ দিয়ে তুলে আনা হচ্ছে’।

দিলীপবাবু আরও বলেন, ‘মিডিয়ার লোকেরা সরকারের সমালোচনা করলে রাত একটা সময় তাকে তুলে আনা হচ্ছে, ভয় দেখানো হচ্ছে। যাতে কেউ সমালোচনা না করে। যা ইচ্ছা করতে পারেন। সরকার মুখ্যমন্ত্রীর এই প্রশাসনের উপর কোনও কন্ট্রোল নেই। পুলিশ প্রশাসন আইন শৃঙ্খলা রক্ষা না করে পার্টির সেবা করতে গিয়ে পুরো সমাজের চোর ডাকাত গুন্ডা বদমাশ টেরোরিস্টদের দাদাগিরি চলছে। আর তার প্রতিবাদ করলে আমাদের ওপর ডান্ডা চলছে’।

শিক্ষকদের আন্দোলনকে সমর্থন করে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘শিক্ষকদের যেভাবে বদলি করা হয়েছে তারা কষ্টের মধ্যে আছেন। তারা প্রতিবাদ করতে এসেছেন, বিষ খেয়েছেন, এর চেয়ে দুরবস্থা আর কী হবে? এখন যারা সেই আন্দোলনে নেতৃত্ব দিচ্ছেন তাদেরকে টাইট দেওয়ার চেষ্টা চলছে’।

 

বন্ধ করুন