বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > বিজেপির 'ভদ্রমহিলারা' মাটিতে ফেলে মেরেছে, দাবি যাদবপুরের অধ্যাপিকার, অস্বীকার করল দল
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

বিজেপির 'ভদ্রমহিলারা' মাটিতে ফেলে মেরেছে, দাবি যাদবপুরের অধ্যাপিকার, অস্বীকার করল দল

এই ঘটনায় এফআইআর দায়ের করেছেন তিনি।

যাদবপুর এইট-বি স্ট্যান্ডের সামনে বিজেপির মহিলা কর্মকর্তাদের হাতে প্রহৃত হওয়ার অভিযোগ করলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অধ্যাপিকা। নিজের অভিজ্ঞতার কথা ফেসবুকে জানিয়েছেন দয়িতা মজুমদার। তবে অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে গেরুয়া দলের তরফ থেকে।

দয়িতা লিখেছেন যে তিনি সিএএ বিরোধী একটি মিছিলে অংশ নেওয়ার পর বাড়ি ফিরছিলেন। তখনই তিনি দেখেন যে এইট-বি স্ট্যান্ডে একটি সিএএ-পক্ষের একটি মিটিং হচ্ছে। সেখানে বিশেষ এক সম্প্রদায়কে নিয়ে ভুল তথ্য দেওয়া হচ্ছিল বলে তাঁর দাবি। ফেসবুকে দয়িতা লিখেছেন যে তিনি দুই বার বলে ওঠেন যে মিথ্যে কথা বলা হচ্ছে। তখনই কিছু মধ্যবয়স্ক মহিলা তাঁকে আক্রমণ করেন, বলে অভিযোগ। তাঁকে মাটিতে ফেলে লাথি মারা হয় বলে দয়িতার অভিযোগ। যারা বাধা দিতে গিয়েছিল, তাদেরও উত্তম-মাধ্যম মারা হয় বলে তিনি জানিয়েছেন। দয়িতা যাদবপুরের ইংলিশ বিভাগে সহকারী অধ্যাপক। তিনি ও তাঁর দুই ছাত্র পুুলিশে অভিযোগ জানিয়েছেন বলে জানান দয়িতা।


অন্যদিকে বিজেপির দাবি যে পার্টির মিটিং যেখানে হচ্ছিল, সেখানে বহু অতি বাম সমর্থকরা বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন। কিন্তু গেরুয়া দলের সমর্থকরা সংযম হারায়নি, বলেই তাদের দাবি। ওই মিটিংয়ে স্বপন দাসগুপ্ত, শান্তনু ঠাকুর, শমীক ভট্টাচার্য্য সহ বহু বিশিষ্ট বিজেপি নেতা উপস্থিত ছিলেন। শমীক পরে বলেন যে অনেক অতি-বামপন্থী সংগঠনের সদস্যরা এসে স্লোগান দেন, তাঁদের ক্যাডারদের ধাক্কাও দেয়।

পুলিশ জানিয়েছে যে দুই পক্ষই লাগাতার স্লোগান দিচ্ছিল, এবং পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য ব্যারিকেডের ব্যবস্থা করা হয়েছে। দুটি অভিযোগ তারা পেয়েছেন ও সেগুলিকে খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে পুলিশ সূত্রে বলা হয়েছে।

যাদবপুর শিক্ষক সংগঠন জুটার সাধারণ সম্পাদক পার্থ প্রতিম রায় এই ঘটনার কড়া নিন্দা করেছেন। তিনি বলেছেন যে বিজেপির হাতে নিগৃহীত হয়েছেন ইংলিশ ডিপার্টমেন্টের শিক্ষক দয়িতা মজুমদার। এই রাজনৈতিক নৈরাজ্যের তীব্র বিরোধ করছি, বলে জানান তিনি।




বন্ধ করুন