বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলে রাত জাগল নিউ আলিপুর
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলে রাত জাগল নিউ আলিপুর

  • শোভনদেব গোষ্ঠীর লোকেরা নিউ আলিপুর থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে থানার কাছেই জুঁই বিশ্বাসের গোষ্ঠীর লোকেরা গাড়ি করে এসে তাদের ওপর হামলা চালায়।

খাস কলকাতার বুকে তৃণমূলের ২ গোষ্ঠীর সংঘর্ষে উত্তেজনা চলল রাতভর। বৃহস্পতিবার রাতে ঘটনাটি ঘটে নিউ আলিপুরে। অভিযোগ, তৃণমূলের শোভনদেব গোষ্ঠী ও জুঁই বিশ্বাসের গোষ্ঠীর সদস্যরা একে অপরের ওপরে ঝাঁপিয়ে পড়েন। দুই পক্ষেরই কয়েকজন করে আহত হয়েছেন। 

অভিযোগ, বৃহস্পতিবার রাত ১০টা নাগাদ শোভনদেব গোষ্ঠীর এক সদস্য মাঝেরহাট কলোনিতে জুঁই বিশ্বাসের গোষ্ঠীর এক মহিলাকে লক্ষ্য করে কটূক্তি করেন। তার পালটা শোভনদেব গোষ্ঠীর ওই সদস্যের মোটরসাইকেল জ্বালিয়ে দেন জুঁই ও স্বরূপ বিশ্বাসের গোষ্ঠীর লোকেরা। এই নিয়ে বেশ কিছুক্ষণ দুপক্ষের ঝামেলা চলে। 

এর পর শোভনদেব গোষ্ঠীর লোকেরা নিউ আলিপুর থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে থানার কাছেই জুঁই বিশ্বাসের গোষ্ঠীর লোকেরা গাড়ি করে এসে তাদের ওপর হামলা চালায়। ব্যাপক মারধর করা হয় শোভনদেবের লোকজনদের। এই ঘটনায় ২ মহিলা-সহ বেশ কয়েকজন আহত হন। 

ঘটনায় দুপক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে রাতে থানায় অভিযোগ জানাতে যায়। কিন্তু পুলিশের তরফে কারও অভিযোগ গ্রহণ করেনি। শোভনদেব গোষ্ঠীর দাবি, আহত অবস্থায় তাদের গোষ্ঠীর বেশ কয়েকজন এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

সম্প্রতি কলকাতায় তৃণমূলের কোন্দল একাধিকবার প্রকাশ্যে চলে এসেছে। কলকাতার মুখ্য প্রশাসক তথা পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের কর্মপদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মানিকতলার বর্ষীয়ান বিধায়ক তথা রাজ্যের আরেক মন্ত্রী সাধন পান্ডে। তাঁকে দল থেকে বহিষ্কারের দাবিতে আবার বৃহস্পতিবারই সাংবাদিক বৈঠক করেছেন বেলেঘাটার বিধায়ক পরেশ পাল। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, যে দলের মন্ত্রী বিধায়কদেরই শৃঙ্খলার এই হাল, তাদের নিচুতলার কর্মীদের আর দোষ দিয়ে লাভ কী? 

 

বন্ধ করুন