বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আনিস খান তুমি কার?‌ ফেসবুক লাইভে নিজেদের বলে প্রমাণ দিলেন দেবাংশু

আনিস খান তুমি কার?‌ ফেসবুক লাইভে নিজেদের বলে প্রমাণ দিলেন দেবাংশু

মোমবাতি জ্বালিয়ে আনিস খান স্মরণ। নিজস্ব চিত্র।

এই পরিস্থিতিতে ফেসবুক লাইভে আনিসের ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারের চ্যাট তুলে ধরে একই দাবি করলেন তৃণমূল কংগ্রেসের দেবাংশু ভট্টাচার্য।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগেই বলেছিলেন, ছাত্রনেতা আনিস খান তাঁর খুব ফেবারিট ছিলেন। তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে আনিসের যোগাযোগ ছিল। ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় দু’‌জন পুলিশকে গ্রেফতার পর্যন্ত করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ফেসবুক লাইভে আনিসের ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারের চ্যাট তুলে ধরে একই দাবি করলেন তৃণমূল কংগ্রেসের দেবাংশু ভট্টাচার্য।

ঠিক কী বলেছেন দেবাংশু?‌ ফেসবুক লাইভে দেবাংশু ভট্টাচার্য দাবি করেন, ‘‌আনিস খান তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে ও দলের লোকজনের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছিল। আনিস মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সমর্থন করত। এখন আমি আপনাদের একটা স্ক্রিন শট দেখাই। যেখানে লেখা রয়েছে ‘এই বিজেপি আর নয়’ গানের কয়েকটি পংক্তি। আগামী দিনে কঠিন পথ, কে টানবে সুখের রথ। ভারতকে দেখাবে পথ, বাংলার তৃণমূল ছাত্র পরিষদ। এবং যুবক বাঁচে গতি ধাক্কায়, ছাত্র–যুব মমতাময়।’‌

এই স্ক্রিন শটগুলি দেখান দেবাংশু। যা আনিস খানের ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে রয়েছে। এখন রাজ্য–রাজনীতি উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে আনিসের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে। এমনকী রাজনীতি শুরু হয়ে গিয়েছে। সিবিআই না সিট, এই নিয়ে চর্চা তুঙ্গে। এই পরিস্থিতিতে দেবাংশু ভট্টাচার্য দাবি করেছেন, আনিস খান কোনও এক তৃণমূল কংগ্রেসের নেতাকে মেসেঞ্জারে এই মেসেজগুলি পাঠিয়েছিলেন।

আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও আগেই বলেছিলেন, ‘আনিস খান আমার ফেভারিট ছেলে।’ এখন অনেকে বলছেন, এসএফআই সমর্থক ছিলেন আনিস খান। আইএসএফ–ঘনিষ্ঠ ছিলেন বলে দাবি করেছেন বিধায়ক নওসাদ সিদ্দিকি। তাই আনিস মৃত্যুর প্রকৃত কারণ বেরিয়ে না আসলেও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, আনিস খান তুমি কার?‌ কারণ বিজেপি তাদের দলের সদস্য বলে দাবি না করলেও শুভেন্দু অধিকারী পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন। আর পুলিশ দিয়ে খুন করা হয়েছে বলেও দাবি করেছেন।

বন্ধ করুন