বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘বেনফিশকে আবার নতুন করে সাজাতে চাই’‌, ভেটকি–চিংড়ি নিয়ে নয়া ঘোষণা অখিলের
বেনফিশ। ছবি সৌজন্য–এএনআই।

‘বেনফিশকে আবার নতুন করে সাজাতে চাই’‌, ভেটকি–চিংড়ি নিয়ে নয়া ঘোষণা অখিলের

  • শহরের বেশ কয়েকটি জায়গায় বেনফিশ মাছের সম্ভার বিক্রি হলেও তার মান পড়ে গিয়েছিল।

লকডাউনের পর যখন গোটা দেশ তথা পশ্চিমবঙ্গ স্বাভাবিক হয়েছে তখন থেকেই বেনফিশের ভেটকি দিয়ে তৈরি ফিশ ফ্রাইয়ের মান কমেছে বলে অভিযোগ। যাঁরা আগে একবারও বেনফিশের ফিশ ফ্রাই খেয়েছিলেন তাঁরা এখন খেয়ে মান পড়েছে বলে অভিযোগ করছেন। এই পরিস্থিতিতে নিজেদের গুড উইল তথা ঐতিহ্য ফিরে পেতে দেশি ভেটকি দিয়েই ফিশ ফ্রাই তৈরি করতে চাইছে বেনফিশ। বম্বে বা ভোলা ভেটকি দিয়ে কাজ করতে রাজি নয় তারা।

কলকাতার অফিসপাড়া ধর্মতলা মোড়ে রাজ্য মৎস্য দফতরের বেনফিশের ফিস ফ্রাই এখন পাওয়া যাচ্ছে না। তাই অফিসপাড়ার জনগণ এখন হতাশ। তার উপর মান পড়ে যাওয়ায় হতাশা আরও বেড়েছে। শহরের বেশ কয়েকটি জায়গায় বেনফিশ মাছের সম্ভার বিক্রি হলেও তার মান পড়ে গিয়েছিল। তাই এবার ঐতিহ্য ফিরে পেতেই ভেটকি আর চিংড়ি দিয়ে নানা পদ সামনে নিয়ে আসতে চলেছে বেনফিশ।

এদিকে বেনফিশ সূত্রে খবর, ফিসফ্রাই বা ভেটকির পাতুরিতে আগে ব্যবহার করা হতো ভোলা ভেটকি বা বম্বে ভেটকি। তাতে প্রথমদিকে সুনাম হচ্ছিল। কিন্তু ইদানিং জনগণের কাছ থেকে মান পড়ে যাওয়ার অভিযোগ আসছিল। তাই মানুষের হৃদয়ে বেনফিশকে স্থান দিতে এবার দেশি ভেটকি ব্যবহার করা হবে। আর তাতে মানুষের রুচিতে ফিরবে বেনফিশ।

জানা গিয়েছে, ধর্মতলা এলাকায় আবার ঐতিহ্য নিয়ে ফিরতে চলেছে বেনফিশ। আর গড়িয়াহাট, সেক্টর ফাইভ, শ্যামবাজার, উল্টোডাঙা, রুবি হাসপাতাল মোড়–সহ বেশ কয়েকটি জায়গায় বেনফিশের স্টল চালু রয়েছে। সেখানে পোলাও, দেশি ভেটকি, চিংড়ি মিলছে। এই বিষয়ে রাজ্যের মৎস্যমন্ত্রী অখিল গিরি বলেন, ‘বেনফিশকে আবার নতুন করে সাজাতে চাই। মাছের সম্ভার মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে চাই। থাকবে আসল ভেটকি থেকে চিংড়ির নানা পদ। মাছের পদ যাতে মানুষ ন্যায্য দামে পান তাই বেনফিশের স্টলের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে।’‌

বন্ধ করুন