বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌শুভেন্দু বিজেপিতে যেতেই পতনের যাত্রা শুরু’‌, পরাজয় নিয়ে কটাক্ষ ফিরহাদের
পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।
পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

‘‌শুভেন্দু বিজেপিতে যেতেই পতনের যাত্রা শুরু’‌, পরাজয় নিয়ে কটাক্ষ ফিরহাদের

  • এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে তুলোধনা করলেন পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

চার কেন্দ্রের উপনির্বাচনে তিনটিতেই জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে বিজেপির। উপনির্বাচনের ডার্বি ম্যাচে ফলাফল দাঁড়িয়েছে ৪–০। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে তুলোধনা করলেন পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। এই বিজেপির পর পর পরাজয়ের জন্য ফিরহাদ সরাসরি শুভেন্দুকেই দায়ী করেছেন।

রাজ্যে বিজেপির জয়ের ধ্বজা তিনি ওড়াবেন। তা না করা পর্যন্ত রাজনীতি থেকে তিনি অবসর নেবেন না। এই কথা জানিয়েছেন স্বয়ং শুভেন্দু অধিকারী। বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন করা হয় ফিরহাদকে। তিনি বলেন, ‘‌আমি চাই শুভেন্দু রাজনীতিতে থাকুক। কারণ দেখা যাচ্ছে, শুভেন্দু অধিকারী যেদিন থেকে বিজেপিতে এসেছে সেদিন থেকে বিজেপির পতনের যাত্রা শুরু হয়ে গিয়েছে। তাই শুভেন্দু অধিকারী যাতে রাজনীতি থেকে অবসর না নেয় সেটাই আমরা কামনা করি।’‌

এদিন উপনির্বাচনে বিজেপির হার নিয়ে ফিরহাদ বলেন, ‘‌আমরা ২০১৯ সালে যে যে কেন্দ্রগুলি শুভেন্দুকে দায়িত্ব দিয়েছিলাম সেই সেই কেন্দ্রে হেরেছিলাম। এবার বিজেপি যে যে কেন্দ্রের দায়িত্ব শুভেন্দুকে দিয়েছিল সেখানে সেখানে বিজেপি হেরেছে। এখন বিজেপি ঠিক করুক শুভেন্দুকে নিয়ে কি করবে।’‌ ফিরহাদের এই মন্তব্য নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছে রাজ্য–রাজনীতিতে।

আর আজ পুরসভা নির্বাচন নিয়ে তিনি জানান, রাজ্যের যে কোনও প্রান্তে এখনই যদি পুরো নির্বাচন হয়, তবে তার জন্য তৃণমূল কংগ্রেস প্রস্তুত আছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা–কর্মীরা সারা বছর মানুষের জন্য মানুষের সার্থে মানুষের মঙ্গলে কাজ করে। তাই মানুষের আস্থা অর্জন করে থাকার ফলে যে কোনও ধরনের ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা এবং পুরবোর্ড তৈরি করা তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষে কঠিন কাজ হবে না।

বন্ধ করুন