বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > BSF-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধির বিরুদ্ধে প্রস্তাব পেশ, আলোচনা হবে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায়
  দেশের বিভিন্ন সীমান্তে কড়া নজরদারি চালায় বিএসএফ  (PTI Photo) (ফাইল ছবি )
  দেশের বিভিন্ন সীমান্তে কড়া নজরদারি চালায় বিএসএফ  (PTI Photo) (ফাইল ছবি )

BSF-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধির বিরুদ্ধে প্রস্তাব পেশ, আলোচনা হবে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায়

  • পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বিএসএফের এক্তিয়ার বৃদ্ধির ইস্যুটির বিরুদ্ধে একটি প্রস্তাব উত্থাপন করেন।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যে বিএসএফের এক্তিয়ার বৃদ্ধির বিষয়ে দেড় ঘণ্টা দীর্ঘ আলোচনার অনুমতি দিয়েছেন। আজ এর আগে, তৃণমূল সরকারের পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এই ইস্যুটির বিরুদ্ধে একটি প্রস্তাব উত্থাপন করেন। বিধানসভার ১৮৫ নম্বর রুল অনুযায়ী বিএসএফের এক্তিয়ার বৃদ্ধির প্রতিবাদে প্রস্তাব আনা হয়। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অভিযোগ, 'বিএসএফের এলাকাবৃদ্ধি আদতে যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর ওপর আঘাত।'

সম্প্রতি বাংলা, অসম ও পঞ্জাবে এক্তিয়ার বেড়েছে বিএসএফ-এর। আর এই নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল কংগ্রেস সরকার ও পঞ্জাবের কংগ্রেস সররকারের সঙ্গে সংঘাত শুরু হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তকে একপেশে আখ্যা দিয়ে ইতিমধ্যেই পঞ্জাব বিধানসভায় প্রস্তাব পেশ হয়েছে। একই পথে হেঁটে আজকে বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বিরোধিতা করে প্রস্তাব পেশ করা হয় পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভাতেও।

উল্লেখ্য, গত ১১ অক্টোবর একটি নোটিশ জারি করে বিএসএফ-এর ক্ষমতা বাড়ানোর ঘোষণা করে কেন্দ্র। এর ফলে পঞ্জাব, পশ্চিমবঙ্গ আর অসমে আন্তর্জাতিক সীমান্তে ৫০ কিমি পর্যন্ত অঞ্চলে তল্লাশি, বাজেয়াপ্ত আর গ্রেফতার করতে পারবে সীমান্তরক্ষী বাহিনী। এই আবহে পশ্চিমবঙ্গের সীমান্ত এলাকায় এনিয়ে পুলিশের সঙ্গে বিএসএফের সংঘাত হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই। তৃণমূলের একাংশের মতে রাজ্যপুলিশের এলাকার মধ্যে গিয়ে কাজ করার ছাড়পত্র দেওয়া হচ্ছে বিএসএফকে। এর জেরে রাজ্য পুলিশের এলাকার মধ্যে গিয়ে নাক গলাতে পারে বিএসএফ। আর তাই এই এক্তিয়ার বৃদ্ধির নির্দেশিকার বিরোধিতায় সরব হয়েছে তৃণমূল।

এদিকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে কলকাতায় আসেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব অজয়কুমার ভল্লা। রাজ্যের মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্রসচিবের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। সেখানে রাজ্যের আধিকারিকরা তাঁদের আপত্তির কারণ জানান। পালটা কেন্দ্রের যুক্তি শোনান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিবও।

বন্ধ করুন