বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Sovondeb Chatterjee: ‘‌মিঠুনকে আমরা ভয় পাই না, গুরুত্বও দিই না’‌, কড়া প্রতিক্রিয়া দিলেন শোভনদেব

Sovondeb Chatterjee: ‘‌মিঠুনকে আমরা ভয় পাই না, গুরুত্বও দিই না’‌, কড়া প্রতিক্রিয়া দিলেন শোভনদেব

শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়।

বিজেপি সূত্রে খবর, আজ ২৩ নভেম্বর থেকে ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত মিঠুন চক্রবর্তীর ঠাসা কর্মসূচি রয়েছে এই রাজ্যে। ২৩ তারিখ তিনি পুরুলিয়া প্রচার করবেন। ২৪ তারিখ বাঁকুড়ায় প্রচার করবেন। ২৫ তারিখ বিষ্ণুপুরে যাবেন তিনি। ২৬ তারিখ আসানসোল কর্মসূচি রয়েছে তাঁর। আর শেষদিন ২৭ তারিখ বোলপুরে প্রচার করবেন তিনি।

বছর ঘুরলেই পঞ্চায়েত নির্বাচন। আর তার প্রাক্কালে রাজ্যে এসেছেন মিঠুন চক্রবর্তী। তিনি আজ, বুধবার থেকে রাজ্যজুড়ে নানা জেলায় প্রচার করবেন। ইতিমধ্যেই তিনি দাবি করেছেন, তৃণমূল কংগ্রেসের একাধিক বিধায়ক–সাংসদ তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছেন। এইসব নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে রাজ্য–রাজনীতিতে। এবার মিঠুনকে লক্ষ্য করে কড়া প্রতিক্রিয়া দিলেন শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়।

কেমন কর্মসূচি থাকছে মিঠুনের?‌ বিজেপি সূত্রে খবর, আজ ২৩ নভেম্বর থেকে ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত মিঠুন চক্রবর্তীর ঠাসা কর্মসূচি রয়েছে এই রাজ্যে। ২৩ তারিখ তিনি পুরুলিয়া প্রচার করবেন। ২৪ তারিখ বাঁকুড়ায় প্রচার করবেন। ২৫ তারিখ বিষ্ণুপুরে যাবেন তিনি। ২৬ তারিখ আসানসোল কর্মসূচি রয়েছে তাঁর। আর শেষদিন ২৭ তারিখ বোলপুরে প্রচার করবেন তিনি। গোটা সফরে মিঠুনের সঙ্গী হবেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।

ঠিক কী বলেছেন শোভনদেব?‌ মিঠুনের জেলা সফর নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস তেমন আমল দিতে রাজি নয়। এই নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন বর্ষীয়ান বিধায়ক তথা রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। এদিন তিনি বলেন, ‘‌মিঠুনকে আমরা ভয় পাই না, গুরুত্বও দিই না। আমরা এবারও ব্যাপকভাবে পঞ্চায়েতে জিতব। শুধু মিঠুন কেন, আমরা বিজেপি প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, সারাদেশের বিজেপি মুখ্যমন্ত্রীরা এসে একুশ সালে জবাব পেয়ে গিয়েছেন। তাই কাউকেই আমরা ভয় পাই না।’‌

আর মিঠুনের বক্তব্য কী?‌ রাজ্যে পা রেখে মিঠুন চক্রবর্তী ভোকাল টনিক দিতে শুরু করেছেন। এদিন তিনি বলেন, ‘‌দলের সভাপতির নির্দেশে আমি এসেছি। দলের কাজ করতে এসেছি। আমি যা করব সেটা সবাই জানতে পারবেন। আমি লুকিয়ে কোনও কিছু করব না। তৃণমূলের ২১ জন বিধায়ক–সাংসদ আমার সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। যে রাজ্য দুর্নীতি এবং হিংসায় প্রথম তাদের কখনও হারানো যায়।’‌ উল্লেখ্য, বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির হয়ে জোরদার প্রচার করেন মিঠুন। কিন্তু, বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির পরাজয়ের পর থেকে তাঁকে আর পশ্চিমবঙ্গে দেখা যায়নি।

বন্ধ করুন