বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বিধানসভায় অভিনব সাজে প্রবেশ মদন মিত্রের, রঙিন মেজাজে কালারফুল নেতা
কামারহাটির তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক মদন মিত্র

বিধানসভায় অভিনব সাজে প্রবেশ মদন মিত্রের, রঙিন মেজাজে কালারফুল নেতা

  • বরাবরই ব্যতিক্রমী সাজেন মদন মিত্র। লাল ধুতির সঙ্গে ঘিয়ে রঙের পাঞ্জাবি পরে তাঁকে আগেও দেখা দিয়েছে। তাই একসময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, মদন আমাদের কালারফুল নেতা। আজ মদন মিত্র ক্রকস পরে সত্যিই কালারফুল হয়ে উঠলেন।

‘‌মেজাজটাই তো আসল রাজা, আমি রাজা নই’‌, মহানায়ক উত্তমকুমার অভিনীত সিনেমার এই সংলাপ শোনা যায় আপামর বাঙালির মুখে। এমনকী শোনা যায় কামারহাটির বিধায়কের গলায়ও। এবার তিনি মেজাজ দেখালেন। তবে ভাষা প্রয়োগ করে নয়। পোশাকের ফ্যাশনে। আর তাও এই পোশাক পরে তিনি ধরা দিলেন ভরা বিধানসভায়। শুক্রবার বিধানসভার গোটা আলো যেন তিনি শুষে নিলেন।

কেমন পোশাক পরে বিধানসভায় আসেন মদন মিত্র?‌ শুক্রবার বিধানসভায় যখন মদন মিত্র প্রবেশ করেন তখন দেখা যায়, গায়ে ঘিয়ে রঙের তসরের পাঞ্জাবি, হলুদ রঙের কোচানো পাড়ের সিল্কের ধুতি। আর পায়ে সাদার উপর প্রিন্টেড ক্রকসের স্যান্ডেল। সঙ্গে চোখে হলুদ রঙের সানগ্লাস। এই পোশাক পরে আসতেই অনেকে বলে ওঠেন, সত্যিই কালারফুল নেতা।

কেন এমন পোশাক পরলেন তিনি?‌ এই বিষয়ে কামারহাটির তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক মদন মিত্র বলেন, ‘‌ব্রিটিশরা যখন ন্যাশনাল লাইব্রেরি তৈরি করেছিল, তার পাল্টা মিনার্ভা থিয়েটারের পাশে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তৈরি করেছিলেন চৈতন্য লাইব্রেরি। আজ সেই চৈতন্য লাইব্রেরিতে একটা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যাবো। সেখানে জিন্স পরে, কলার তুলে যাওয়াটা শোভা পায় না। তাই ধুতি–পাঞ্জাবি পরলাম।’‌

উল্লেখ্য, বরাবরই ব্যতিক্রমী সাজেন মদন মিত্র। লাল ধুতির সঙ্গে ঘিয়ে রঙের পাঞ্জাবি পরে তাঁকে আগেও দেখা দিয়েছে। তাই একসময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, মদন আমাদের কালারফুল নেতা। আজ মদন মিত্র ক্রকস পরে সত্যিই কালারফুল হয়ে উঠলেন। মাঝে ধুতি পরলে পায়ে কোলাপুরি চটিও পরতে দেখা গিয়েছিল। আর বিধানসভায় আজ এই সাজে তিনি যেন ফ্যাশনের ফিউশন রেখে গেলেন।

বন্ধ করুন