বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‌মুকুল রায়ের বাড়িতে হাজির শীলভদ্র দত্ত, নাড্ডার বাংলা সফরের আগে জল্পনা তুঙ্গে
শীলভদ্র দত্ত ও মুকুল রায়। ফাইল ছবি
শীলভদ্র দত্ত ও মুকুল রায়। ফাইল ছবি

‌মুকুল রায়ের বাড়িতে হাজির শীলভদ্র দত্ত, নাড্ডার বাংলা সফরের আগে জল্পনা তুঙ্গে

  • এদিকে, পুরনো সহকর্মীর সঙ্গে দেখা করার কথা মানতে চাননি মুকুল রায়। যদিও এই স্বীকার–অস্বীকারের মাঝে নিজের রাজনৈতিক অবস্থান নিয়ে ফের জল্পনা উস্কে দিলেন শীলভদ্র দত্ত।

‌বিজেপি–র সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডার বাংলা সফরের ঠিক আগের দিন মুকুল রায়ের বাড়িতে হাজির ব্যারাকপুরের তৃণমূল বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত। জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার বিকেলে সল্টলেকের বিডি ব্লকে বিজেপি–র সর্বভারতীয় সহ সভাপতি তথা প্রাক্তন সহকর্মী মুকুল রায়ের বাড়িতে গিয়ে তাঁর সঙ্গে দেখা করেন তৃণমূল বিধায়ক। এ খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই জল্পনা শুরু হয়, অবশেষে কি দল ছাড়তে চলেছেন শীলভদ্র দত্ত!‌ যদিও দু’‌জনেই এদিন সাক্ষাতের কথা অস্বীকার করেছেন।

এদিন মুকুল রায় ও শীলভদ্র দত্তকে একসঙ্গে প্রকাশ্যে দেখাও যাননি। তবে মুকুল রায়ের সঙ্গে সাক্ষাতের কথা স্বীকার না করলেও এদিন তিনি যেখানে থাকেন সেখানে যাওয়ার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন শীলভদ্র দত্ত। তাঁর কথায়, ‘‌ওখানে তো মাঝেমধ্যেই যাই।’‌ এদিকে, পুরনো সহকর্মীর সঙ্গে দেখা করার কথা মানতে চাননি মুকুল রায়। যদিও এই স্বীকার–অস্বীকারের মাঝে নিজের রাজনৈতিক অবস্থান নিয়ে ফের জল্পনা উস্কে দিলেন শীলভদ্র দত্ত।

দলের ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের কাজকর্ম নাপসন্দ হওয়ার পাশাপাশি সদ্য মন্ত্রিত্ব ত্যাগ–করা শুভেন্দু অধিকারীর সিদ্ধান্তগুলিকে সমর্থন জানিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরেই তৃণমূলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়িয়ে চলেছেন ব্যারাকপুরের দু’‌বারের বিধায়ক। সম্প্রতি দল নিয়ে একাধিকবার অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন তিনি। গত বুধবার, ২ ডিসেম্বর নিজের ফেসবুকে ‘‌বন্ধু দেখা হবে’‌ লিখে তুঙ্গে তুলে দিয়েছিলেন জল্পনা। তাঁর গতিপ্রকৃতি বুঝতে পিকে–র দলবল, খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক তাঁর কাছাকাছি গেলেও লাভ হয়নি তাতেও।

বন্ধ করুন