বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Jago Bangla: তৃণমূল সরকার ফেলার চক্রান্ত সিপিআইএম–বিজেপির, দাবি শাসকদলের মুখপত্রে

Jago Bangla: তৃণমূল সরকার ফেলার চক্রান্ত সিপিআইএম–বিজেপির, দাবি শাসকদলের মুখপত্রে

সিপিএম নেতা অশোক ভট্টাচার্য ও বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্ত।

সম্প্রতি শুভেন্দু অধিকারী থেকে সুকান্ত মজুমদার এই সরকার ফেলে দেওয়ার কথা বলেছেন। এমনকী ডিসেম্বর মাসেই সরকার দুর্বল হয়ে যাবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তাঁরা। আবার তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি, কেন্দ্রীয় সরকার গোপনে বাংলা–বিহারের কিছু অংশ নিয়ে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার পরিকল্পনা করছে। তাই তার প্রতিবাদ করা হচ্ছে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার ফেলে দেওয়ার চক্রান্ত করছে বিজেপি–সিপিআইএম। এই অভিযোগ তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপত্র জাগোবাংলায় করা হয়েছে। কারণ কালীপুজোর দিন শিলিগুড়ির প্রাক্তন মেয়র অশোক ভট্টাচার্যের সঙ্গে হঠাৎ গিয়ে বৈঠক করেন বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্তা। এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। যদিও কালীপুজোর পরে আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারি দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। বিজেপির পক্ষ থেকে আগে বহুবার সরকার ফেলার হুমকি দেওয়া হয়েছিল। তারপর সিপিআইএম নেতার সঙ্গে বিজেপির সাংসদের বৈঠক ‘‌শত্রুর শত্রু আমার বন্ধু’‌ পথে হাঁটা বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

বিষয়টি ঠিক কী ঘটেছে?‌ সম্প্রতি শুভেন্দু অধিকারী থেকে সুকান্ত মজুমদার এই সরকার ফেলে দেওয়ার কথা বলেছেন। এমনকী ডিসেম্বর মাসেই সরকার দুর্বল হয়ে যাবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তাঁরা। আবার তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি, কেন্দ্রীয় সরকার গোপনে বাংলা–বিহারের কিছু অংশ নিয়ে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার পরিকল্পনা করছে। তাই তার প্রতিবাদ করা হচ্ছে। বিজেপি এখান থেকে এই চক্রান্তে মদত দিচ্ছে বলেও অভিযোগ। আর এই সরকার ফেলে দেওয়ার চক্রান্তে বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়েছে সিপিআইএম। নতুন এই অভিযোগে এখন রাজ্য–রাজনীতি সরগরম।

কী ঘটেছে সিপিআইএম–বিজেপির মধ্যে?‌ সম্প্রতি শিলিগুড়ির প্রাক্তন মেয়র অশোক ভট্টাচার্যের সঙ্গে বৈঠক করেন বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্তা এবং বিজেপি বিধায়ক শঙ্কর ঘোষ। সেখানে সিপিআইএমকে তাঁদের পাশে থাকার জন্য বলা হয়েছে। অর্থাৎ বিজেপিকে সমর্থন করতে বলা হয়েছে। তাহলেই এই তৃণমূল কংগ্রেস সরকার ফেলে দেওয়া সম্ভব হবে। আগামী ডিসেম্বর মাসে সরকার ফেলে দেবেন এবং তাদেরকে সঙ্গে থাকার আহ্বান জানানো হয়েছে। সিপিআইএম–বিজেপির এই গোপন আঁতাত হয়েছে বলে তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে খবর।

ঠিক কী বলছেন সিপিআইএম–বিজেপি নেতা?‌ এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘বলার কিছুই নেই। মাথা খারাপ হয়ে গেলে উল্টোপাল্টা বকে। বিজেপির সঙ্গে চক্রান্ত করে তৃণমূল চিরকাল চলেছে এবং চক্রান্ত করেই তৃণমূল নেতারা এখনও জেলে টিকে রয়েছেন। যা ওরা নিজেরা করে, আয়নার সামনে দাঁড়ায়, ভুতের মতো নিজের চেহারা দেখে আর সিপিআইএমের ঘারে ফেলে দেয়।’‌ আর দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‌বাইরে থেকে কারও চক্রান্ত করার প্রয়োজন নেই। সরকার এবং দলের মধ্যে এত চক্রান্ত চলছে তাই সামলে উঠতে পারছে না। সরকার পড়লে তাদের জন্যই পড়বে।’‌

বাংলার মুখ খবর
বন্ধ করুন

Latest News

ঘরের ভিতর থেকে বের হচ্ছে দুর্গন্ধ, কাজ শিকেয় যুগ্ম পুর কমিশনারের, কী মিলল? জনসভা শেষ হতেই সুকান্ত-শুভেন্দুকে ডাকলেন মোদী, প্রর্থী জল্পনার মাঝে বৈঠকে ৩ জন অনন্ত-রাধিকার প্রাক-বিবাহ অনুষ্ঠান, আম্বানিদের হবু বউমার নাম একী উচ্চারণ রিহানার খারাপ নিকাশীর জেরে বাংলার গঙ্গা স্নানেরও যোগ্য নয়! রাজ্যকে সতর্ক করল NGT লোকসভায় বাংলায় এগিয়ে BJP না TMC? আসন ধরে ধরে জানুন কে জিতবে কোথায়: সমীক্ষা ইস্টবেঙ্গল যেখানে বলবে, সেখানেই আমরা খেলব, তবে… ডার্বি নিয়ে অকপট বাগান সচিব বেহাল অবস্থা সিউড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের, অখুশি জেলাশাসক শ্রেয়স আইয়ারের সঙ্গে কি অবিচার হয়েছে? উঠে এল নাইট অধিনায়কের চোটের অজানা কাহিনি কোনও স্কুলে ভুয়ো শিক্ষক নেই তো? জানতে হেডমাস্টারদের চিঠি, বির্তক ঘৃণা ছড়ানোর অভিযোগে ৩ নিউজ চ্যানেল ও অ্যাঙ্করদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.