বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌ইডি–সিবিআই আমার কাঁচকলা করেছে, কাঁচকলা করবে’‌, তোপ দাগলেন অভিষেক
অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

‘‌ইডি–সিবিআই আমার কাঁচকলা করেছে, কাঁচকলা করবে’‌, তোপ দাগলেন অভিষেক

  • কয়েকদিন আগেই সামশেরগঞ্জ–জঙ্গিপুরে প্রচারে গিয়ে অভিষেক বলেছিলেন, মোদী–শাহের দুই ভাই ইডি আর সিবিআই।

রবিবাসরীয় বিকেলে ভবানীপুরে দাঁড়িয়ে সপ্তমে সুর চড়ালেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। উপনির্বাচনের প্রচারে শেষ রবিবার আজই। তাই এখানে ঝড়ের গতিতে সভা করছেন দলের বাকি নেতা–মন্ত্রীরা। আজ আবার মমতা–অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের যৌথ সভা রয়েছে। আর আজ এখানে এসে তিনি হুঙ্কার ছেড়ে বলেন, ‘‌একমাত্র নরেন্দ্র মোদীকে হারাতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই। বহিরাগতদের দিয়ে বাংলা দখল করতে না পেরে এখন বহিরাগত এজেন্সি পাঠাচ্ছে। ৫০০ এজেন্সি পাঠালেও মেরুদণ্ড বিক্রি করব না।’‌

কয়েকদিন আগেই সামশেরগঞ্জ–জঙ্গিপুরে প্রচারে গিয়ে অভিষেক বলেছিলেন, মোদী–শাহের দুই ভাই ইডি আর সিবিআই। আর আজ অমিত শাহকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে অভিষেক বলেন, ‘‌কত নোটিশ পাঠাবেন পাঠান। মেরুদণ্ড বিক্রি করব না। এখনও পর্যন্ত আমাকে পাঁচটা নোটিশ পাঠানো হয়েছে। নোটিশ পাঠাতে পাঠাতে কাগজ–কালি শেষ হয়ে যাবে। তবু জেরা শেষ হবে না। ইডি–সিবিআই আমার কাঁচকলা করেছে, কাঁচকলা করবে।’‌

রোমে বিশ্ব শান্তি সম্মেলনে যেতে দেওয়া হয়নি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তা নিয়ে আজ অভিষেক তোপ দেগে বলেন, ‘‌গোটা দেশ থেকে আন্তর্জাতিক ওই শান্তি সম্মেলনে ডাক পেয়েছিলেন একমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু মোদীর সরকার তাঁকে যেতে দিল না। কেন জানেন? কারণ তাহলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে ওঁর থেকে বেশি জনপ্রিয় হয়ে যাবেন।’‌

উল্লেখ্য, এই বিষয়ে গতকালই সুর চড়িয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছিলেন, কেন যেতে দেওয়া হল না আমাকে? আমাকে যেতে না দিয়ে বেআইনি কাজ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। ভারতের সম্মান জড়িত ছিল এই সফরের সঙ্গে। অনেক বিশিষ্টজনেদের সঙ্গে আমাকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল শান্তি সম্মেলনে। ইতালি থেকে বিশেষ অনুমোদনও পাওয়া গিয়েছিল। তা সত্ত্বেও অনুমোদন দিল না কেন্দ্র।

বন্ধ করুন