বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌এবার মানসিকতার পরিবর্তন প্রয়োজন’‌, কংগ্রেসকে খোঁচা দিয়ে বার্তা ডেরেকের
ডেরেক ও ব্রায়ান (PTI)
ডেরেক ও ব্রায়ান (PTI)

‘‌এবার মানসিকতার পরিবর্তন প্রয়োজন’‌, কংগ্রেসকে খোঁচা দিয়ে বার্তা ডেরেকের

  • সদ্য বিধানসভার উপনির্বাচনে কংগ্রেস একটি কেন্দ্রে প্রার্থী দিয়েছিল। সেটা শান্তিপুর।

কংগ্রেস–বিজেপির সঙ্গে আঁতাত করে চলছে। ২০১৪ সাল থেকে বিজেপি বিরোধী কোনও লড়াই তারা করেনি। তলায় তলায় আন্ডারস্ট্যান্ডিং করেছে। এই চোখা চোখা বাক্যবাণ শোনা গিয়েছিল বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায়। এবার ফের কংগ্রেসকে বার্তা তৃণমূল কংগ্রেস। সরাসরি এবার মানসিকতার পরিবর্তন প্রয়োজন বলে বার্তা দেওয়া হয়েছে। এমনকী নিজেদের মধ্যে ঐক্য মজবুত হোক বলেও এবার কংগ্রেসকে বার্তা দিল ঘাসফুল শিবির।

সদ্য বিধানসভার উপনির্বাচনে কংগ্রেস একটি কেন্দ্রে প্রার্থী দিয়েছিল। সেটা শান্তিপুর। সেখানে বামেদের থেকে অনেক কম ভোট পেয়ে চতুর্থ স্থানে চলে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে এমন বার্তা নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ কংগ্রেসের সঙ্গে একটা জোট হওয়ার কথা চলছে। খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নয়াদিল্লি গিয়ে সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে দেখা করে এসেছেন। সেখানে বারবার জোটের প্রসঙ্গই উঠেছে। কিন্তু কংগ্রেস এগিয়ে আসতে পারেনি বলেই তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ।

বুধবার ডেরেক ও’‌ব্রায়েন কংগ্রেসের উদ্দেশ্যে বার্তা দেন। তিনি টুইট করেন। যেখানে বলা হয়েছে, ‘‌বিজেপিকে পরাস্ত করতে হবে। তাই বারবার সব বিজেপি বিরোধী আঞ্চলিক এবং সর্বভারতীয় দলগুলিকে একছাতার তলায় আসতে আহ্বান জানানো হচ্ছে। যাতে একটি মঞ্চ তৈরি করে আগামীদিনের নির্বাচনে বিজেপিকে পরাস্ত করা যায়।’‌

বাংলায় কোনও কিছু করতে না পারলেও বেশ কয়েকটি রাজ্যের নির্বাচনে কংগ্রেস ভাল ফলাফল করেছে। সেখানে বিজেপিকে তারা পরাস্ত করতে পেরেছে। তাই অধীর চৌধুরীকে বলতে শোনা যায়, ‘‌কংগ্রেস মানে ভারত আর ভারত মানেই কংগ্রেস। কারণ কংগ্রেসের সর্বভারতীয় উপস্থিতি আছে। ফলাফল তাই বলছে। এখন তাঁরা যদি ভুল বুঝতে পারেন তাহলে অবশ্যই সেটা আমাদের জন্য সুখবর।’‌ তারপরেই ডেরেকের পক্ষ থেকে এলো বার্তা। এখন দেখার কংগ্রেস–তৃণমূল ফের কাছাকাছি আসে কি না।

বন্ধ করুন