বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > লাভ এবং জেহাদ— শব্দ দুটি কখনও পাশাপাশি বসতে পারে না, বিজেপি–কে আক্রমণ নুসরতের
মহাষ্টমীর আরতি করছেন সাংসদ নুসরত জাহান। ছবি সৌজন্য ; পিটিআই (PTI)
মহাষ্টমীর আরতি করছেন সাংসদ নুসরত জাহান। ছবি সৌজন্য ; পিটিআই (PTI)

লাভ এবং জেহাদ— শব্দ দুটি কখনও পাশাপাশি বসতে পারে না, বিজেপি–কে আক্রমণ নুসরতের

  • বিজেপি–কে সরাসরি আক্রমণ করে নুসরত বলেন, ‘‌বিজেপি–কে আমি একটাই পরামর্শ দিতে চাই। তাদের আগে বোঝা উচিত যে ভালবাসা বা প্রেম— এই ব্যাপারটি একান্ত ব্যক্তিগত।’‌

কলকাতায় জগদ্ধাত্রী পুজোর উদ্বোধনে গিয়ে বিজেপি–কে ‘বিষ’ বলে কটাক্ষ করলেন তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহান। একইসঙ্গে ‘লাভ জেহাদ’ নিয়ে সরব হলেন ওই অভিনেত্রী–সাংসদ। একদিকে যেখানে ‘লাভ জেহাদ’–এর প্রেক্ষাপটে নতুন আইন আনতে চলেছে যোগী আদিত্যনাথের উত্তরপ্রদেশ সরকার, সেখানে এই পদক্ষেপকে ‘‌অত্যন্ত দুঃখজনক’ বলে সমালোচনা করলেন নুসরত জাহান।‌

বিজেপি–শাসিত বেশ কয়েকটি রাজ্যের সরকার ‘লাভ জেহাদ’‌ জাতীয় ঘটনা রুখতে সম্প্রতি তৎপরতা দেখাচ্ছে। শনিবার পুজোর উদ্বোধন সেরে সে প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বিজেপি–কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন বসিরহাটের সাংসদ নুসরত জাহান। তিনি বলেন, ‘‌লাভ এবং জেহাদ— এই শব্দ দুটি কখনও পাশাপাশি বসতে পারে না। ভালবাসা, প্রেম একেবারেই ব্যক্তিগত। আমি কাকে ভালবাসব আর কাকে ভালবাসব না তা নিয়ে কারও কিছু বলার থাকতে পারে না।’‌

এদিন বিজেপি–কে সরাসরি আক্রমণ করে নুসরত বলেন, ‘‌বিজেপি–কে আমি একটাই পরামর্শ দিতে চাই। তাদের আগে বোঝা উচিত যে ভালবাসা বা প্রেম— এই ব্যাপারটি একান্ত ব্যক্তিগত। এই সম্পর্কে বোঝার পাশাপাশি ওই দলের উচিত ভালবাসা শেখা। মানুষের মধ্যে ধর্মের নামে বিবাদ না ছড়িয়ে, আগে বিজেপি মানুষকে ভালবাসুক।’‌

উল্লেখ্য, নিখিল জৈনের সঙ্গে বিয়ের পর থেকেই গোড়া মুসলিম ও গোড়া হিন্দুদের রোষানলে পড়তে হয়েছে তৃণমূলের সাংসদ নুসরত জাহানকে। সিঁদুর ও মঙ্গলসূত্র পরে বিয়ের পর প্রথমবার যখন তিনি সংসদে গিয়েছিলেন তখনও তাঁর বিরুদ্ধে নানারকম ফতোয়া জারি করে কিছু ধর্মীয় গোষ্ঠী। প্রতি বছর কলকাতায় রথযাত্রা বা দুর্গাপুজোর অষ্টমীতে দেখা যায় নুসরতকে। কে কী বলছে তা নিয়ে অবশ্য মাথা ব্যাথা নেই তাঁর। তাঁর কথায়, ‘‌আমি প্রথমত একজন বাঙালি। ধর্মনিরপেক্ষভাবে আমি সকলকে ভালবাসি।’‌

বন্ধ করুন