বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Sougata Roy: ‘‌এই চিঠির তদন্ত হওয়া উচিত’‌, দেবযানীর মায়ের চিঠি নিয়ে বিস্ফোরক সৌগত
সৌগত রায়।

Sougata Roy: ‘‌এই চিঠির তদন্ত হওয়া উচিত’‌, দেবযানীর মায়ের চিঠি নিয়ে বিস্ফোরক সৌগত

  • সারদা দুর্নীতি কাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত দেবযানী মুখোপাধ্যায়। তাঁর মায়ের চিঠি জমা পড়েছে আদালতে। দেবযানীর মা বৃহস্পতিবার আলিপুর আদালতের গিয়ে এই চিঠি জমা দেন। সেই চিঠিতে শর্বরী মুখোপাধ্যায় দাবি করেন, তাঁর মেয়েকে চাপ দিচ্ছে সিআইডি। 

সম্প্রতি সারদা কাণ্ডে জেলবন্দি দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের চিঠি প্রকাশ্যে এনেছেন তাঁর মা শর্বরী মুখোপাধ্যায়। সেই চিঠিতে তাঁর মেয়ের উপর চাপ দেওয়া হচ্ছে বলে উল্লেখ করা হয়। সিআইডি–কে এক্ষেত্রে কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হয়েছে। বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতাদের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে চাপ দেওয়া হচ্ছে বলে চিঠিতে অভিযোগ করা হয়েছে। আর তা নিয়ে সিপিআইএম–বিজেপি মাঠে নেমে পড়েছে। যদিও এই চিঠির সত্যতা নিয়ে সন্ধিহান তৃণমূল কংগ্রেস। তবে এই অভিযোগের পাল্টা চিঠি নিয়ে বিবৃতি জারি করেছে রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থা সিআইডি। আজ, শনিবার দেবযানীর চিঠির বয়ান নিয়ে বিস্ফোরক প্রশ্ন তুললেন বর্ষীয়ান তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সৌগত রায়।

ঠিক কী বলেছেন সৌগত রায়?‌ এই বিষয়ে সৌগত রায় সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‌কিছুদিন আগে আমার সঙ্গে দেবযানীর দেখা হয়েছিল দমদম সেন্ট্রাল জেলের এক অনুষ্ঠানে। সেদিন দেবযানী আমাকে বা জেলের অফিসারদের কিছু বলেনি৷ আমি সামনে থেকে কথা বললাম। কিছু তো বলল না। এখন ওঁর কথা বিশ্বাস করব কী করে? ওঁর মা চিঠি সামনে নিয়ে এসেছে। কিন্তু ওঁর মা তো আর অভিযুক্ত নয়। দেবযানীর এই চিঠির কথা আমার কাছে বিশ্বাসযোগ্য নয়। এই চিঠির তদন্ত হওয়া উচিত।’‌

তৃণমূল কংগ্রেস কী বলছে?‌ এই চিঠি নিয়ে শুভেন্দু অধিকারী ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলে টুইট করেছেন। যার পাল্টা কুণাল ঘোষ বলেন, ‘‌দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের মা যে চিঠি লিখেছেন, সিআইডি তাঁর উত্তর দিয়েছে। কিন্তু শুভেন্দু অধিকারীর যে উচ্ছ্বাস দেখতে পাচ্ছি, তাতে মনে হচ্ছে দমবন্ধ পরিবেশ থেকে বেরিয়ে আসার পরিপ্রেক্ষিতে এমন কিছুর একটা অপেক্ষা তিনি করেছিলেন। যেন তিনি আশা করেছিলেন এমন একটা চিঠি আসছে। শুভেন্দুর কেন এত আনন্দ?‌ সেটাও তদন্তে দেখা উচিত।’‌

উল্লেখ্য, সারদা দুর্নীতি কাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত দেবযানী মুখোপাধ্যায়। তাঁর মায়ের চিঠি জমা পড়েছে আদালতে। দেবযানীর মা বৃহস্পতিবার আলিপুর আদালতের গিয়ে এই চিঠি জমা দেন। সেই চিঠিতে শর্বরী মুখোপাধ্যায় দাবি করেন, তাঁর মেয়েকে চাপ দিচ্ছে সিআইডি। সারদার টাকা নেওয়ার ঘটনায় রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী এবং সিপিআইএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর নাম নিতে বলা হচ্ছে।

বন্ধ করুন