বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > জল ঠেলে শহরের বুকে হেঁটে আসছেন বয়স্ক লোকটি, কাছে আসতেই স্তম্ভিত সবাই

রবিবার রাত থেকে নাগাড়ে বৃষ্টির জেরে শহর থেকে জেলা জলের তলায়। বানবাসী পরিস্থিতিতে মানুষ এখন গৃহবন্দি। স্বেচ্ছায় এই গৃহবন্দি দশা কারও পছন্দের নয়। এই পরিস্থিতিতে লেক গার্ডেন্স থেকে যে রাস্তাটা মেন রোডে এসে পড়েছে সেখানে এক বয়স্ক মানুষকে জল ঠেলে হেঁটে আসতে দেখা যাচ্ছে। কে এই মানুষটি?‌ লুঙ্গি গুটিয়ে হেঁটে আসছেন।

অনেকেই প্রথমটা বুঝতে পারেননি। তারপর সামনে আসতেই সাধারণ মানুষ যেন প্রাণ ফিরে পেলেন। হ্যাঁ, তিনি তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সৌগত রায়। রাতভর বৃষ্টিতে জলে ডুবেছে শহরের রাস্তাঘাট। কোথাও হাঁটু জল, কোথাও কোমর জল। সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস অবস্থা। কিন্তু এই অবস্থাতে নিজের বাড়িতে আরামে সময় কাটাননি সাংসদ। মানুষের যন্ত্রণার ভাগীদার হতেই লুঙ্গি গুটিয়ে বৃষ্টি মাথায় করে হেঁটে দেখছেন অবস্থাটা কি!‌

হাঁটুজলে পথে নামতে দেখে অনেকেই আপ্লুত। তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সৌগত রায় এইভাবেই আজ মানুষের দুয়ারে দুয়ারে পৌঁছে গেলেন। কলকাতার লেক গার্ডেন্স এলাকার বাসিন্দা সৌগতবাবু। দক্ষিণ কলকাতার এই এলাকাও ডুবে রয়েছে। তার মধ্যেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নিজেই নামলেন পথে। লুঙ্গি পরে হাঁটুজলে পথে নামেন সৌগত বাবু। ঘুরে দেখেন এলাকার পরিস্থিতি। পাড়ার দাদাকে পাশে পেয়ে অনেকেই অভিযোগ জানান সৌগতবাবুর কাছে। তিনিও প্রত্যেককে আশ্বস্ত করে জানান, দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে।

হাফ হাতা শার্ট আর পরনে লুঙ্গি দেখে অনেকে চিনতে না পারলেও নিজস্ব মেজাজেই জল ভেঙে এগিয়ে এলেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ। যা অনেকেই আশা করতে পারেননি। আর খোঁজ নিলেন, কী অসুবিধা হচ্ছে?‌ বাড়ির ভেতর জল ঢুকেছে নাকি?‌ চিন্তা করবেন না আমি পাশে আছি। জল যাতে নেমে যায় তার ব্যবস্থা করেছি। তখন সবাই হাত নেড়ে একগাল হাসি দিয়ে সম্মতি জানালেন।

বন্ধ করুন