বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > সব দলেই খারাপ লোক থাকে, তাই বলে পুরো দলটাকে খারাপ বলা যায় না কি? শোভনদেব

সব দলেই খারাপ লোক থাকে, তাই বলে পুরো দলটাকে খারাপ বলা যায় না কি? শোভনদেব

শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

শোভনদেববাবু বলছেন, ‘সমাজে সবাই ভালো লোক না কি? এই সভায় সবাই ভালো লোক না কি? সব দলেই খারাপ লোক আছে। আমার দলেও আছে।

তৃণমূলের অন্দরেও খারাপ লোক রয়েছে। ফের স্বীকারোক্তি রাজ্যের এক মন্ত্রীর। আর এবার যেমন তেমন মন্ত্রী নয়, স্বগতোক্তি শোনা গেল রাজ্যের পরিষদীয় মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের কণ্ঠে। যার ছেড়ে দেওয়া আসনে জিতে মুখ্যমন্ত্রীর পদ ধরে রেখেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রবিবার প্রকাশ্যে আসা এক ভিডিয়োয় দেখা যাচ্ছে, শোভনদেববাবু বলছেন, ‘সমাজে সবাই ভালো লোক না কি? এই সভায় সবাই ভালো লোক না কি? সব দলেই খারাপ লোক আছে। আমার দলেও আছে। তারা শাস্তি পাবে। তাই বলে একটা দল পুরো খারাপ হয়ে যেতে পারে না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দুর্নীতি করেননি’। এর আগেও একই ধরণের কথা বলেছিলেন তিনি। তখনও তাঁর বক্তব্য নিয়ে তৃণমূলের অন্দরে বিতর্ক শুরু হয়েছিল। শাসকদলকে আক্রমণ করতে শুরু করেছিল বিরোধীরা।

নয়াদিল্লির ব্যবসায়ী অপহরণ কলকাতায়, টাওয়ার লোকেশন ট্র‌্যাক করে নাটকীয় উদ্ধার

এদিন তাঁর মন্তব্য নিয়ে বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা বলেন, ‘দূরবীন দিয়ে খুঁজলেও তৃণমূলে একটা ভালো মানুষ পাওয়া যাবে না। শাস্ত্রে বলে, সৎসঙ্গে স্বর্গবাস, অসৎসঙ্গে সর্বনাশ। তৃণমূলের অসৎসঙ্গে যারা যাবে তাদের সর্বনাশ কেউ আটকাতে পারবে না।’

রাজ্যের মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অন্যতম আস্থাভাজন। গত মন্ত্রিসভায় তিনি বিদ্যুৎমন্ত্রী ছিলেন। বিজেপির অভিযোগ, বিদ্যুৎমন্ত্রী থাকাকালীন বিদ্যুৎ সংস্থাগুলি থেকে মোটা টাকা তিনি পার্টি ও পার্টির সর্বোচ্চ নেতাদের পাচার করেছেন। আর বাড়তি বিলের বোঝা বইতে হয়েছে সাধারণ মানুষকে। ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কেন্দ্র ভবানীপুর থেকে ভোটে লড়েন জয়লাভ করেন। কৃষিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান তিনি। কিন্তু নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীর কাছে মমতা হেরে যাওয়ায় ভবানীপুর আসনটি ছেড়ে দিতে হয় তাঁকে। এর পর খড়দা থেকে উপ নির্বাচনে লড়ে ফের জেতেন শোভনদেববাবু। এর পর পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গ্রেফতারির পর মন্ত্রিসভার রদবদলে পরিষদীয় মন্ত্রীর দায়িত্ব পান তিনি।

 

বন্ধ করুন