বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > TMC Bijoya Sammelani: বিজয়া সম্মিলনীর অনুষ্ঠানে বাবুলকে ঘিরে ‘গো ব্যাক’ স্লোগান তৃণমূলেরই কর্মী সমর্থকদের

TMC Bijoya Sammelani: বিজয়া সম্মিলনীর অনুষ্ঠানে বাবুলকে ঘিরে ‘গো ব্যাক’ স্লোগান তৃণমূলেরই কর্মী সমর্থকদের

বাবুল সুপ্রিয়। ফাইল ছবি। (HT_PRINT)

ফার্ন রোডে বিজয়া সম্মিলনীর আয়োজন করেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। সেই সম্মিলনীর প্রধান বক্তা ছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। স্বাভাবিকভাবেই অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য সেখানে গিয়েছিলেন বাবুল। এরপরে তাকে ঘিরে বিক্ষোভ করে তৃণমূলের কয়েকজন কর্মী সমর্থক। 

পঞ্চায়েত ভোটের লক্ষ্যে জনসংযোগ বাড়াতে রাজ্যজুড়ে চলছে তৃণমূলের বিজয়া সম্মিলনী। সেই সম্মিলনীতে যোগ দিতে গিয়ে অস্বস্তিতে পড়লেন বালিগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক বাবুল সুপ্রিয়। তাকে ঘিরে উঠলো ‘গো ব্যাক স্লোগান’, বিক্ষোভ দেখালেন তৃণমূলেরই কর্মী সমর্থকরা। যারজেরে দক্ষিণ কলকাতার গড়িয়াহাটের ফার্ন রোডে কার্যত ভেস্তে যায় বিজয়া সম্মিলনীর অনুষ্ঠান। এই ঘটনায় ফের প্রকাশ্যে এসেছে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব।

রাজ্যজুড়ে অভিনব বিজয়া সম্মিলনী, তৃণমূল কংগ্রেসের পুরনো কর্মীদের সম্বর্ধনা

গতকাল রবিবার ফার্ন রোডে বিজয়া সম্মিলনীর আয়োজন করেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। সেই সম্মিলনীর প্রধান বক্তা ছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। স্বাভাবিকভাবেই অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য সেখানে গিয়েছিলেন বাবুল। এরপরে তাকে ঘিরে বিক্ষোভ করে তৃণমূলের কয়েকজন কর্মী সমর্থক। এছাড়া বাবুলকে ঘিরে গো ব্যাক স্লোগানও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। জানা যাচ্ছে, যে কর্মী সমর্থকরা বাবুলকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন তারা স্থানীয় ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর সুদর্শনা মুখোপাধ্যায়ের অনুগামী। বিজয়া সম্মিলনীতে কাউন্সিলরের নাম না থাকার জন্য এদিন তার সমর্থকরা বিক্ষোভ দেখায় বলে জানা গিয়েছে।

এই ঘটনার পরে তৃণমূলের পক্ষ থেকে দলীয় নেতাকর্মীদের সতর্ক করা হয়েছে। ঘটনার খোঁজখবর নিয়েছেন দক্ষিণ কলকাতা জেলা তৃণমূল সভাপতি দেবাশিস কুমার। তৃণমূলের এক নেতা জানিয়েছেন, জনসংযোগ বাড়ানোর জন্যই এই বিজয়া সম্মিলনীর আয়োজন করা হয়েছে। কিন্তু, দলের অন্তরে এরকম বিক্ষোভ দেখালে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হতে পারে। তাই কোনওভাবেই এই ধরনের ঘটনা বরদাস্ত করা হবে না।

বন্ধ করুন