বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মিশন ২০২৪, আর ছুটির মেজাজে থাকা চলবে না, নেতা–কর্মীদের নির্দেশ মমতার

মিশন ২০২৪, আর ছুটির মেজাজে থাকা চলবে না, নেতা–কর্মীদের নির্দেশ মমতার

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় (‌ছবি স্ক্রিনগ্র‌্যাব)‌

আর তাই এখন থেকেই সাংগঠনিক কাঠামো মজবুত করতে নেমে পড়েছে অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেস।

এবার লক্ষ্য ২০২৪। সর্বভারতীয় স্তরে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। কারণ লোকসভা নির্বাচনে গোটা দেশকে চমকে দেওয়ার মতো ফল করতে হবে। বাংলার গণ্ডি পেরিয়ে রাজধানীতে জায়গা করে নিতে হবে। আর তাই আগের থেকে অনেক বেশি সাংগঠনিক হতে চাইছে তৃণমূল কংগ্রেস। ২০২৪ লোকসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। আর তাই এখন থেকেই সাংগঠনিক কাঠামো মজবুত করতে নেমে পড়েছে অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেস। বিধানসভা নির্বাচনে রেকর্ড জয় মিলেছে। কিন্তু তা বলে ছুটির মেজাজে থাকা চলবে না। এবার সেটা দলের বিধায়ক–সাংসদ–নেতা–মন্ত্রী–কর্মীদের জানিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তাহলে কী করতে হবে?‌ দলীয় সূত্রে খবর, প্রথমেই মানুষের জন্য কাজ করতে হবে। কোন সরকারি প্রকল্প কারা পাচ্ছে না, কেন পাচ্ছেন না, সামাজিক কোনও সমস্যা আছে কিনা, রাজনৈতিক কোনও সমস্যা বিজেপি করছে কিনা—সবটাই দেখার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। দুয়ারে প্রকল্পগুলি যেন দুয়ারেই পৌঁছয় তার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। আবার দলের জন্যও আরও বেশি করে কাজ করতে হবে নেতা–মন্ত্রীদের বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাই পার্টি অফিসে নিয়মিত যাওয়ার অভ্যেস করতে হবে। এবার দলের সব প্রথমসারির নেতাদের জন্য পার্টি রস্টার তৈরি করা হয়েছে। সেখানে কাউকে সপ্তাহে প্রত্যেকদিন, কাউকে আবার নির্ধারিত দিনে পার্টি অফিসে থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এই রস্টারে যুব–মহিলা নেতৃত্বকেও পার্টি অফিসে নিয়মিত আসার অভ্যেস করতে হবে। এমনকী সাংস্কৃতিক ছাত্র নেতৃত্বকেও নিয়মিত পার্টি অফিসে এসে দায়িত্ব নিতে হবে। কাজ ভাগ করে দেওয়া হবে। দলের সমস্ত রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকতে হবে প্রতিটি নেতৃত্বকে। এই বিষয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায় বলেন, ‘‌পার্টি অফিস খুব গুরুত্বপূর্ণ জায়গা। পার্টি অফিসে যাওয়ার অভ্যেস থাকাটা জরুরি। সক্রিয় নেতা বা মন্ত্রীর নিয়মিত পার্টি অফিসে থাকাটা দলের জন্যও ভাল। আগামীদিনে দলের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড আরও বাড়বে।’‌

উল্লেখ্য, বিধানসভা নির্বাচনের পরই এক নেতা, এক পদ নীতি চালু করেছে তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব। মন্ত্রীদের দলের কোনও পদের দায়িত্ব দেওয়া হবে না। ২০১৯ নির্বাচনের পর তৃণমূল সুপ্রিমো জানিয়েছিলেন, দলের স্বার্থে আরও বেশি সময় তিনি দেবেন। সেই কথা রেখেছেন তিনি। ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই নেতা–কর্মীদের পরামর্শ দিয়েছিলেন, তাঁরা যেন পার্টি অফিসে গিয়ে দলের কর্মকাণ্ডের সঙ্গে আরও বেশি করে যুক্ত হন। এবার সেই নির্দেশই দেওয়া হল।

বাংলার মুখ খবর

Latest News

অনন্ত রাধিকার বিয়ে নয়, রাঘবের হাত ধরে রবিবার কোথায় গেলেন পরিণীতি! জল্পনার অবসান, আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে সত্যিই অবসর নিলেন জার্মান তারকা মুলার শরীরে ভীষণ ব্যাথা! তবু ক্ষত ঢেকে মাথায় পরচুলা পরে ফটোশ্যুটে হিনা খান রেল লাইনে ফটোশুটে মগ্ন হতেই এসে পড়ল ট্রেন! ৯০ ফুট উপর থেকে ঝাঁপ দম্পতির, এরপর? কুলতলিতে সাদ্দামের খাট সরাতেই বেরিয়ে এল গোপন সুরঙ্গ, মিশেছে খালে! হতবাক পুলিশ পরচুলা পরেছেন, মেকআপ দিয়ে ক্ষত ঢাকার চেষ্টা, আঘাত পেয়ে ব্যাথায় চিৎকার করলেন হিনা রাজ্যের কোন চালে DA মামলায় আজও ‘সুখবর’ পেলেন না সরকারি কর্মীরা? জানালেন আইনজীবী সোহিনী-শোভনের বিয়ের দিনই ছাদনাতলায় গেলেন স্বস্তিকাও! ব্যাপারটা কী? ব্যাটিংয়ের থেকে ফিল্ডিং-ই বেশি পছন্দ- সেরা ফিল্ডার হয়ে কি আক্ষেপ করলেন রিঙ্কু? লিখিত প্রমাণ চাই!পাকিস্তানে খেলা নিয়ে BCCI সত্যি বলছে কিনা জানতে পালটা চাল PCB-র

T20 WC 2024

কতদিন খেলবেন ওডিআই ও টেস্ট? আমেরিকায় গিয়ে ঘোষণা করলেন রোহিত শর্মা! রোহিত জেতায় ‘ক্রেডিট চুরি, হারের বেলায় কোথায় ছিলেন?', নেটপাড়ায় রোষের মুখে সৌরভ US-তে বিশ্বকাপ করে 'কোটি-কোটি টাকার লোকসান', বাজে মাঠ- ঝড় উঠতে পারে ICC-র বৈঠকে রোহিতকে যখন অধিনায়ক করেছিলাম, সবাই তখন আমার সমালোচনা করেছিল… মোক্ষম জবাব সৌরভের ক্রিকেটে অত ফিটনেস লাগে না, মত সাইনার, শুনতে হল ‘১৫০ কিমি বল খেলা এতই সহজ?’ T20 WC 2024-এ রোহিত শর্মার কাছে মার খাওয়া নিয়ে মুখ খুললেন মিচেল স্টার্ক ওরা কেন কম টাকা পাবে- সাপোর্ট স্টাফদের জন্য প্রশ্ন তুলে বোনাস নিতে চাননি রোহিত T20 WC 2024: প্রকাশ্যে অজিদের অন্তর্দ্বন্দ্ব, একাদশে সুযোগ না পাওয়ায় সরব স্টার্ক পা কি দড়িতে লেগেছিল? ডেভিড মিলারের ক্যাচ নিয়ে অবশেষে মুখ খুললেন সূর্যকুমার যাদব ভিডিয়ো: আমি ভুল করেছিলাম… হরভজনের সঙ্গে আড়ালে কী কথা হচ্ছিল? মুখ খুললেন কামরান

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.