বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > জঙ্গলমহল উদ্ধার করতে মাওবাদীর নামে ভয় দেখানো শুরু করেছে তৃণমূল: দিলীপ ঘোষ
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি

জঙ্গলমহল উদ্ধার করতে মাওবাদীর নামে ভয় দেখানো শুরু করেছে তৃণমূল: দিলীপ ঘোষ

  • এরই মধ্যে ঝাড়গ্রামের বৈঠক নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ। শনিবার এক দলীয় সভায় তিনি বলেন, ‘জঙ্গলমহল উদ্ধার করা যাবে না বুঝে মাওবাদীদের নামে ভয় দেখাচ্ছে তৃণমূল।

জঙ্গলমহলে সাম্প্রতিক মাওবাদী গতিবিধি ও তার পর শনিবার পুলিশের উচ্চ পর্যায়ের বৈঠককে কেন্দ্র করে বিস্ফোরক দাবি করলেন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। শনিবার তিনি বলেন, ‘জঙ্গলমহলে হারানো জমি ফিরে পেতে মাওবাদীদের নামে আতঙ্ক ছাড়াচ্ছে তৃণমূল।’

সম্প্রতি ঝাখড়ণ্ড লাগোয়া ঝাড়গ্রামের বেলপাহাড়ি সংলগ্ন একাধিক গ্রামে আলতায় লেখা পোস্টার পাওয়া গিয়েছে। তার পরই শনিবার ঝাড়গ্রামে জেলা পুলিশের আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র। সেই বৈঠকে মাওবাদী গতিবিধি রোখার ব্লু প্রিন্ট তৈরি হয়েছে বলে খবর। সঙ্গে যারা পোস্টার লাগাচ্ছে তাদের চিহ্নিত করে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে। 

এরই মধ্যে ঝাড়গ্রামের বৈঠক নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ। শনিবার এক দলীয় সভায় তিনি বলেন, ‘জঙ্গলমহল উদ্ধার করা যাবে না বুঝে মাওবাদীদের নামে ভয় দেখাচ্ছে তৃণমূল। মুখ্যমন্ত্রী ও পরিবহণমন্ত্রী মাওবাদীদের সঙ্গে একাধিক বৈঠক করেছেন।’

তবে তৃণমূলের মাওবাদী যোগের অভিযোগ নতুন নয়। বাম জমানার শেষ দিকে জনসাধারণের কমিটি নামক মুখোস সংগঠনের নামে মাওবাদীদের সাহায্যে জঙ্গলমহলে লাগাতার ব্যক্তিহত্যার অভিযোগ রয়েছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। রয়েছে জ্ঞানেশ্বরী নাশকতা ও তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের কনভয়ে বিস্ফোরণ ঘটানোর অভিযোগ। সেই সব ঘটনায় মূল অভিযুক্ত ছত্রধর মাহাতোকে প্রায় ১০ বছর পর সম্প্রতি জেল থেকে মুক্তি দেয় রাজ্য সরকার। গত জুলাইয়ে ছত্রধরকে রাজ্য কমিটির সদস্য করে তৃণমূল। 

 

বন্ধ করুন