বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Tourism Logo: মুখ্যমন্ত্রীর অনুমোদন ছাড়াই পাল্টে গেল পর্যটনের লোগো!‌ তোলপাড় নবান্ন

Tourism Logo: মুখ্যমন্ত্রীর অনুমোদন ছাড়াই পাল্টে গেল পর্যটনের লোগো!‌ তোলপাড় নবান্ন

লোগো বদলে ফেলা হয়েছে।

বাংলার পর্যটন এখন বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। একাধিক জায়গাকে পর্যটনস্থল গড়ে তোলা হয়েছে। এই দফতরের মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তিনিও পর্যটনকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছেন। এখন পাহাড় থেকে সমতল তথা জঙ্গলমহলে নানা পর্যটন কেন্দ্র গড়ে উঠেছে। সেখানে হঠাৎ লোগো বদল নিয়ে তোলপাড় অবস্থা হয়েছে নবান্নে। 

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বলতে শোনা যায়—‘এক্সপেরিয়েন্স বেঙ্গল, দি সুইটেস্ট পার্ট অব ইন্ডিয়া’। বিশ্বের পর্যটন মানচিত্রে বাংলাকে এভাবেই তুলে ধরতে চান তিনি। তাই বাংলাই যে ভারতের মধুরতম অংশ, তা বোঝাতে ‘লোগো’ তৈরি করেছিল পর্যটন দফতর। যার অনুমোদন দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু হঠাৎ দেখা গিয়েছে সেই লোগো বদলে ফেলা হয়েছে। এমনকী মুখ্যমন্ত্রীর পছন্দের বার্তাটুকু নতুন লোগো’য় রাখা হয়েছে গুরুত্বহীনভাবে। সেই লোগো ইতিমধ্যেই ঠাঁই পেয়েছে পর্যটন দফতরের নিজস্ব ওয়েবসাইটে। এই ঘটনা নিয়ে এখন তোলপাড় নবান্ন বলে সূত্রের খবর।

বিষয়টি ঠিক কী ঘটেছে?‌ নবান্ন সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত বদলে যাওয়া সেই লোগো মুখ্যমন্ত্রীর অনুমোদন পায়নি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়য়ের সম্মতি ছাড়াই কেমন করে দফতরের লোগো বদল হয়ে গেল, সেই প্রশ্নেই তোলপাড় অবস্থা। যদিও বিষয়টি নিয়ে পর্যটন দফতরের কেউ মুখ খুলতে চাননি। রাজ্যের পর্যটনের ব্র্যান্ডিংয়ের জন্য ২০১৫ সালে লোগো তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়। একটি লোগোকে চূড়ান্ত করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেটাই এতদিন বাংলার পর্যটনের ক্ষেত্রে ‘ব্র্যান্ডিং’ হিসাবে ব্যবহার করা হয়েছে। কিন্তু এবার হঠাৎ তা বদলে ফেলা হয়েছে।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই কেমন করে সেটা ঘটল তার উত্তর খুঁজছে নবান্ন। নতুন লোগোটিতে যে ত্রিমাত্রিক বা ‘থ্রিডি লুক’ দেওয়ার চেষ্টা হয়েছে, তা নিতান্তই জৌলুসহীন। যা পছন্দ হয়নি খোদ মুখ্যমন্ত্রীর বলে সূত্রের খবর। ‘সি টু স্কাই’ কথাটি ব্যবহার করা হয়েছে নয়া লোগো–তে। মুখ্যমন্ত্রী নিজে বাংলার পর্যটনের কথা বলতে গিয়ে বারবার বলেছেন, ‌সমুদ্র থেকে পাহাড়ের কথা। সেখানে কেন ‘সাগর থেকে আকাশ’–এর কথা বলা হল?‌ উঠেছে প্রশ্ন।

উল্লেখ্য, বাংলার পর্যটন এখন বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। একাধিক জায়গাকে পর্যটনস্থল গড়ে তোলা হয়েছে। এই দফতরের মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তিনিও পর্যটনকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছেন। এখন পাহাড় থেকে সমতল তথা জঙ্গলমহলে নানা পর্যটন কেন্দ্র গড়ে উঠেছে। সেখানে হঠাৎ লোগো বদল নিয়ে তোলপাড় অবস্থা হয়েছে নবান্নে। মুখ্যমন্ত্রীর অনুমোদন ছাড়া বদল ঘটল কী করে?‌ উঠছে প্রশ্ন।

বন্ধ করুন