বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কম বাস চলছে শহরের রাস্তায়, যাত্রী হয়রানি কমাতে সিএফে বড় ছাড় দিল পরিবহণ দফতর

কম বাস চলছে শহরের রাস্তায়, যাত্রী হয়রানি কমাতে সিএফে বড় ছাড় দিল পরিবহণ দফতর

কম বাস চলছে শহরের রাস্তায়, যাত্রী হয়রানি কমাতে সিএফে বড় ছাড় দিল পরিবহণ দফতর।

মেয়াদ উত্তীর্ণ গাড়ির মালিকরা এককালীন সর্বোচ্চ দেড় হাজার টাকা দিয়ে সিএফ নবীকরণ করাতে পারে বলে পরিবহণ দফতর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সিএফ নিয়ে কড়াকড়ি করার পর শহরের রাস্তায় কম নামছে বেসরকারি বাস। এর ফলে চরম হয়রানি হচ্ছে যাত্রীদের। সেই সমস্যার কথা মাথায় রেখেই বেসরকারি বাসের ফিটনেস সার্টিফিকেটের ক্ষেত্রে বড়সড় ছাড় দিতে চলেছে পরিবহণ দফতর। মেয়াদ উত্তীর্ণ গাড়ির মালিকরা এককালীন সর্বোচ্চ দেড় হাজার টাকা দিয়ে সিএফ নবীকরণ করাতে পারে বলে পরিবহণ দফতর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বেসরকারি বাস মালিকরা প্রথম থেকেই সিএফে ছাড় দেওয়ার দাবি জানিয়ে আসছিলেন। তাদের বক্তব্য ছিল, ডিজেলের দাম উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পেলেও বাসের ভাড়া বাড়েনি। এই অবস্থায় তাদের পক্ষে সিএফ করা সম্ভব নয়। এর জন্য আর্থিক সমস্যাকেই প্রধান কারণ হিসেবে জানিয়েছিলেন বেসরকারি বাস মালিকরা। যারফলে মেয়াদোত্তীর্ণ বহু বাস চলছিল শহরের রাস্তায়। এনিয়ে কড়াকড়ি করার পরেই রাস্তায় বাস নামানো বন্ধ করে দিয়েছেন মালিকরা। সাড়ে সাত হাজারের জায়গায় এখন শহরের রাস্তায় চলছে মাত্র দেড় হাজারের কাছাকাছি বাস। যার ফলে বাসের জন্য দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করতে হচ্ছে যাত্রীদের।

পরিবহণ দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, সিএফের ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়ার যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তা আগামী তিন মাসের জন্য। তিন মাসের মধ্যেই মেয়াদ উত্তীর্ণ সিএফ নবীকরণ করে ফেলতে হবে। তবে তিন মাসের সময়সীমা পেরিয়ে গেলে পুরোন নিয়মে জরিমানা করা হবে বলে জানা গিয়েছে। সিএফে ছাড় দেওয়ার ফলে রাস্তায় আরও বেশি সংখ্যক বাস নামবে বলে আশা করছে পরিবহণ দফতর। দ্রুতই পরিবহন দফতরের পক্ষ থেকে এনিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে। প্রসঙ্গত, রাজ্যে কয়েক হাজার বাস রয়েছে। ফলে এত সংখ্যক বাসের ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হলে রাজ্যের কোষাগারে চাপ পড়তে পারে। কিন্তু, তারপরেও মানুষের সমস্যার সমাধান হবে বলে আশা পরিবহণ দফতরের।

বন্ধ করুন