বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বিধাননগরে মেয়র পারিষদের শপথ অনুষ্ঠানে পুরসভার নাম পরিবর্তন নিয়ে সরব বিধায়ক

বিধাননগরে মেয়র পারিষদের শপথ অনুষ্ঠানে পুরসভার নাম পরিবর্তন নিয়ে সরব বিধায়ক

বিধায়ক তাপস চট্টোপাধ্যায়। ফাইল ছবি।

 তিনি বলেন, ‘বিধাননগর পুরসভার নাম বদলে বিধাননগর রাজারহাট পুরসভা করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।'

বিধাননগর পুরসভার মেয়র এবং চেয়ারম্যানের শপথগ্রহণের দিন সকলকে একসঙ্গে মিলেমিশে কাজ করার বার্তা দিয়েছিলেন কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। সেই সময় তাঁর বক্তব্যের মধ্যে উঠে এসেছিল মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তী এবং চেয়ারম্যান সব্যসাচী দত্তের মধ্যে টানাপোড়েনের কথা। শুক্রবার মেয়র পারিষদের শপথ গ্রহণের দিনেও একইভাবে সে টানাপোড়নে কথা উঠে আসল বিধায়ক তাপস চট্টোপাধ্যায়ের বক্তব্য। তিনি বলেন, ‘এর আগে ঝগড়া করে অনেক সময় নষ্ট হয়েছে। সেটা যেন আর না হয়।’

সদ্য শপথ নেওয়া মেয়র পারিষদদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘সকলে একসঙ্গে মিলেমিশে কাজ করবে। আমি পরিবারতন্ত্রে বিশ্বাস করিনা। পুরনোদের সঙ্গে নতুনরা একসঙ্গে মিলে ভালোভাবে কাজ করবে।’ তাপস চট্টোপাধ্যায়ের বক্তব্য, ‘প্রথম থেকেই স্নেহের পাশাপাশি শাসনের মধ্যে রাখতে হবে সবাইকে।’ উল্লেখ্য এর আগে বিধাননগর পুরনিগমের ডেপুটি মেয়র ছিলেন রাজারহাট নিউটাউনের বিধায়ক তাপস চট্টোপাধ্যায়। সেই সময় মেয়র সব্যসাচী দত্তের সঙ্গে তাঁর রাজনৈতিক টানাপোড়েনের কথা কারও অজানা নয়।

একই সঙ্গে বিধাননগর পুরসভার নাম পরিবর্তন নিয়েও এদিন সরব হন তাপস চট্টোপাধ্যায়।তিনি বলেন, ‘বিধাননগর পুরসভার নাম বদলে বিধাননগর রাজারহাট পুরসভা করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। রাজারহাটের মানুষ যাতে অসম্মানিত বোধ না করেন তার জন্য মুখ্যমন্ত্রীর কাছে এই প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে সেই প্রস্তাব পাস হয়ে সিলমোহরও পো গিয়েছে।’ 

যদিও এ বিষয়ে মুখ খুলতে চাননি বিধায়ক সুজিত বসু। তিনি বলেন, ‘তাপস দা নিজের বক্তব্য নিজের মতো করে রাখতেই পারে।’ এদিন মেয়র পারিষদ এবং ডেপুটি মেয়রকে শপথ বাক্য পাঠ করান কৃষ্ণা চক্রবর্তী। এছাড়াও ছিলেন বর্ষিয়ান তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়, রাজারহাট গোপালপুরের বিধায়ক অদিতি মুন্সি প্রমুখ।

বন্ধ করুন