বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ইয়াসের আগেই বিদ্যুৎ বিপর্যয় ,কাজ হচ্ছে, আশ্বাস বিদ্যুৎমন্ত্রীর
মঙ্গলবার আচমকা ঝড়ে বীজপুরে এভাবেই ভেঙে পড়েছিল বিদ্যুতের খুঁটি  (নিজস্ব চিত্র)
মঙ্গলবার আচমকা ঝড়ে বীজপুরে এভাবেই ভেঙে পড়েছিল বিদ্যুতের খুঁটি  (নিজস্ব চিত্র)

ইয়াসের আগেই বিদ্যুৎ বিপর্যয় ,কাজ হচ্ছে, আশ্বাস বিদ্যুৎমন্ত্রীর

  • মঙ্গলবার রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে আচমকা ঝড় আছড়ে পড়ে।

ইয়াস আছড়ে পড়বে বুধবার। এমনটাই খবর আবহাওয়া দফতর সূত্রে। ইতিমধ্যেই খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নবান্নের কন্ট্রোল রুম থেকে গোটা বিষয়টির উপর নজর রাখছেন। তবে ইয়াস পুরোপুরি ঝাঁপিয়ে পড়ার আগেই মঙ্গলবার রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় আচমকা কিছুক্ষণের জন্য ঝড়ের দাপট লক্ষ্য করা যায়। এদিন বিকালে কিছুক্ষণের ঝড়ে লণ্ডভণ্ড হয়ে ব্যান্ডেল ও হালিশহরের একাংশ। এই সমস্ত জায়গাতেও বিদ্যুৎ বিপর্যয় দেখা দেয়। একাধিক ট্রান্সফরমার ভেঙে যায়। বিভিন্ন জায়গায় বিদ্য়ুতের খুঁটিও উপড়ে পড়ে। গাছের ডালও পড়ে যায় বিদ্যুতের তারের উপর। এর জেরে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। বিস্তীর্ণ এলাকা আচমকা লোডশেডিং হয়ে যায়। এর জেরে সমস্য়ায় পড়ে যান বাসিন্দারা। তবে অধিকাংশ জায়গাতেই বিদ্যুৎ পরিষেবা স্বাভাবিক করা হয়েছে বলে দাবি করেন বিদ্যুৎমন্ত্রী।

বিদ্যুৎ দফতরের দাবি,  কিছু কিছু জায়গায় ঝড় হয়েছে। গাছ পড়ে সোদপুরে কিছুক্ষণের জন্য বিদ্যুৎ পায়নি মানুষ। রায়দিঘিতেও এই পরিস্থিতি হয়েছিল। পশ্চিমমেদিনীপুরের পিংলাতে দুটি পোল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। তবে এগুলির ক্ষেত্রে দ্রুত পরিষেবা স্বাভাবিক করা হয়েছে। হুগলির ব্যান্ডেলে ১৩টা ট্রান্সফর্মার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উত্তর ২৪ পরগনাতেও বিদ্যুতের পোল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দুটি জায়গাতেই কাজ চলছে। দ্রুত পরিষেবা স্বাভাবিক করা হচ্ছে।  মন্ত্রী বলেন, ‘যেখানে যেমন পারছি দ্রুত পরিষেবা স্বাভাবিক করা হচ্ছে। আধিকারিকরাও রয়েছেন। ’ 

 

বন্ধ করুন