বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > রাতে ফের উত্তপ্ত ভবানীপুর, তৃণমূল কর্মী ভেবে দুই কলেজ পড়ুয়াকে উইকেট দিয়ে মার!
ভবানীপুর থানা। ফাইল ছবি
ভবানীপুর থানা। ফাইল ছবি

রাতে ফের উত্তপ্ত ভবানীপুর, তৃণমূল কর্মী ভেবে দুই কলেজ পড়ুয়াকে উইকেট দিয়ে মার!

  • এখনও থমথমে পরিস্থিতি ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্রে।

নির্বাচনী প্রচারের সময়সীমা শেষ ভবানীপুরে। তবে এখনও থমথমে পরিস্থিতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্বাচনী কেন্দ্রে। সোমবার দিনভর সেখানে বিজেপি কর্মীদের হেনস্থা করা হয়। এরপর রাতে ফের উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। রাতে দুই কলেজ পড়ুয়াকে উইকেট দিয়ে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। হামলার জেরে থুতনি ফেটেছে এক আক্রান্তের। আক্রান্ত দুই যুবকের নাম সত্যদীপ মল্লিক ও সিদ্ধার্থ যোশী। জানা গিয়েছে দুই জনেই কলেজ পড়ুয়া।

এদিকে আক্রান্তদের দাবি, দুষ্কৃতীর দল হয়ত তাঁদের তৃণমূল কর্মী হিসেবে ভেবে এই হামলা চালিয়েছে। জানা গিয়েছে, রাতে স্কুটিতে করে ওষুধ কিনতে বেরিয়েছিলেন দুই বন্ধ। সেই সময় ভবানীপুর থানার অদূরেই তাঁদের আটকানো হয়। সত্যদীপ ও সিদ্ধার্থকে স্কুটি থেকে নামিয়ে উইকেট দিয়ে আক্রমণ করা হয়। সেই সময় সত্যদীপের থুতনিতে উইকেট দিয়ে আঘাত করা হয়।

এর আগে সোমবার শেষবেলার প্রচারের সময় তৃণমূলের এক নেতার সঙ্গে যুক্ত একদল দুষ্কৃতী প্রথমে অর্জুন সিং ও পরে দিলীপ ঘোষের প্রচারে এসে চড়াও হয় বলে অভিযোগ তুলেছিল বিজেপি। আক্রান্ত দুই যুবকের দাবি, সেই হামলার প্রতিশোধ নিতেই তাঁদের উপর হামলা চালানো হয়। ঘটনাটি জানিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

এদিকে সোমবার দিলীপ-অর্জুনদের হেনস্থার প্রেক্ষিতে কলকাতায় মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ জানায় বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপির প্রতিনিধি দলের দাবি, ভবানীপুর কেন্দ্রের শুধুমাত্র একটি এলাকায় নয়, গোটা কেন্দ্র জুড়ে ১৪৪ ধারা জারি করতে হবে। এদিকে ঘটনার প্রেক্ষিতে দিলীপ ঘোষের দাবি, ভবানীপুর উপনির্বাচন কেন্দ্রে নির্বাচন স্থগিত করা হোক।

 

বন্ধ করুন