বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ভোটে ভরাডুবি, এবার বিজেপির দুর্গাপুজোর আয়োজনে ঘোর অনিশ্চয়তা
এবার বিজেপি দুর্গাপুজোর আয়োজন করবে কি না তা নিয়ে ঘোর অনিশ্চয়তা  (প্রতীকী ছবি)
এবার বিজেপি দুর্গাপুজোর আয়োজন করবে কি না তা নিয়ে ঘোর অনিশ্চয়তা  (প্রতীকী ছবি)

ভোটে ভরাডুবি, এবার বিজেপির দুর্গাপুজোর আয়োজনে ঘোর অনিশ্চয়তা

  • মুকুল রায় থেকে বাবুল সুপ্রিয়, সব্যসাচী দত্ত থেকে লকেট চট্টোপাধ্যায় একেবারে মহা উদ্যমে দুর্গাপুজোয় আনন্দে মেতেছিলেন।

দুর্গাপুজোর আর একমাসও বাকি নেই। কিন্তু বিজেপির দুর্গাপুজোর আয়োজন নিয়ে কোনও কথাই শোনা যাচ্ছে না। গতবারেই ইজেডসিসিতে বিজেপির তাবড় নেতারা ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন বিজেপির দুর্গাপুজোর আয়োজনে। মুকুল রায় থেকে বাবুল সুপ্রিয়, সব্যসাচী দত্ত থেকে লকেট চট্টোপাধ্যায় একেবারে মহা উদ্যমে দুর্গাপুজোয় আনন্দে মেতেছিলেন। সেবার ষষ্ঠীর দিন খোদ নরেন্দ্র মোদী ভার্চুয়ালি শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন। কিন্তু এবার যেন গেরুয়া শিবিরে একেবারে ছন্নছাড়া অবস্থা। না আছে কোনও পরিকল্পনা, না আছে কোনও উদ্যোগ। দুর্গাপুজোর আয়োজন কীভাবে হবে বুঝতেই পারছেন দলীয় নেতৃত্বের একাংশ। 

এদিকে সামগ্রিক পরিস্থিতিতে অস্বস্তি ঢাকার জন্য কার্যত চেষ্টা চালালেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, পুজো আয়োজকদের মধ্যে গত বছরে আমি ছিলাম না। যারা গত বছর পুজো আয়োজনের মধ্যে ছিলেন তাঁদের অনেকেই আর পার্টিতে নেই। যতদূর জানি কোনও প্রস্তুতি হয়নি। যারা পার্টির কালচারাল সেলে ছিলেন তাঁরা কী করছেন সেটাও জানি না। গতবারেও আমি বলেছিলাম দুর্গাপুজোর আয়োজন করাটা কোনও পার্টির কাজ হতে পারে না। কিছু লোকজন এগিয়ে এসে করেছিলেন। এবার কী হচ্ছে বলতে পারব না। বিজেপির যুব নেত্রী অমৃতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, গত বছর দলের নির্দেশেই পুজো হয়েছিল। এবার তেমন কোনও নির্দেশ আসেনি।

দলের একাংশের মতে, গত বছর ভোটের আগে যথেষ্ট চাঙা ছিল দল। তৃণমূল থেকে তখন স্রোতের মতো লোকজন বিজেপিতে আসছেন। আর এবার বিধানসভা ভরাডুবির পর নতুন করে পুজো করার মতো উৎসাহ কারোরই আর নেই। বিজেপি থেকে পাততাড়ি গুটিয়েছেন অনেকেই। তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায় বলেন, এখন তো ভোট নেই।২০২৪য়ের আগে ওরা আবার দুর্গাপুজো করবে। 

 

বন্ধ করুন