করোনা মুক্তির জন্য চলছে যজ্ঞ
করোনা মুক্তির জন্য চলছে যজ্ঞ

১০.৫% বৃদ্ধি বেকারত্বের হারে, প্রতি ছ'জনে একজনের চাকরি নেই বাংলায়, বলছে সমীক্ষা

করোনার জেরে বেহাল ভারতীয় অর্থনীতি, তার ফল পড়েছে পশ্চিমবঙ্গেও।

লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে বেকারের সংখ্যা, বিশেষ করে অসংগঠিত ক্ষেত্রে

তবে এখনও জাতীয় বেকারত্বের হারের চেয়ে নীচে পশ্চিমবঙ্গ।

করোনার জেরে এপ্রিল মাসে সারা দেশে বেকারত্বের হার বেড়ে হয়েছে ২৩.৫ শতাংশ। এই তথ্য জানিয়েছে Centre for Monitoring Indian Economy (CMIE)। প্রসঙ্গত পুরো এপ্রিল জুড়েই চলেছে লকডাউন। তাই অসংগঠিত ক্ষেত্রে চাকরি হারিয়েছেন অনেকে।

পশ্চিমবঙ্গেও এর প্রভাব পড়েছে। ১০.৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে বেকারত্বের হার। বেকারত্বের হার এখন ১৭.৪ শতাংশ, অর্থাত্ গড়ে ছয় জনের মধ্যে একজন কর্মহীন রাজ্যে। ২০১৬-র অক্টোবরে রাজ্যে মাত্র ৪.৬ শতাংশ মানুষ বেকার ছিলেন। ধীরে ধীরে পরিস্থিতি খারাপ হয়েছে ও একেবারে বেহাল হয়েছে পরিস্থিতি করোনার জেরে। .

সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে যে সবচেয়ে খারাপ হাল তামিলনাড়ু, ঝাড়খণ্ড ও বিহারে। সেখানে প্রায় ৫০ শতাংশ বেকারত্বের হার। অন্যদিকে সবচেয়ে ভালো পরিস্থিতি পঞ্জাব. চন্ডিগড় ও তেলঙ্গানায়। জাতীয় স্তরে বেকারত্বের হার ৮.৭ শতাংশ থেকে ২৩.৫ শতাংশ হয়েছে।


অসংগঠিত ক্ষেত্রে কত মানুষ চাকরি হারাচ্ছেন, সেটা জানার জন্য সেভাবে সরকারি নির্ভরযোগ্য কোনও পরিসংখ্যান নেই বললেই চলে। এরফলে লেবার মার্কেটের কী হাল, তার কিছুটা আভাস মেলে সিএমআই সমীক্ষার মাধ্যমে। মোট ৪৩,৬০০ পরিবাররে ওপর সমীক্ষা করে এপ্রিল মাসের রিপোর্ট তৈরী করেছে সংস্থা।

তেসরা মে লকডাউন উঠে যাবে কিনা, তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে এটা বোঝা যাচ্ছে যে রেড জোনে সম্ভবত বজায় থাকবে কড়াকড়ি। কেন্দ্রের সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী, রাজ্যের ১০টি জেলাকে রেড জোনের তকমা দেওয়া হয়েছে।

বন্ধ করুন