প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

খাস কলকাতায় দুধে মেশানো হচ্ছিল পচা পুকুরের জল, ধৃত ৩

  • পুলিশকর্মীরা দেখেন, সেখানে দুধের ক্যান থেকে ঢেলে রাখা হচ্ছে দুধ। তার বদলে মেশানো হচ্ছে পাশের পচা পুকুরের জল।

খাস কলকাতায় দুধে পুকুরের নোংরা জল মিশিয়ে বিক্রি করার এক চক্রের হদিশ পেল পুলিশ। ওই চক্রে জড়িত ৩ জনকে সোমবার উত্তর কলকাতার চিৎপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতরা দুধ কিনে তাতে পুকুরের নোংরা জল মিশিয়ে বিক্রি করত। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ওই দুধের ক্রেতাদের মধ্যে। সম্প্রতি উত্তর কলকাতার একাংশে দুধ খেয়ে পেট খারাপ হচ্ছে বলে খবর ছড়ায়। এমনকী দুধ থেকে দুর্গন্ধ বেরোচ্ছে বলেও দাবি করতে থাকেন অনেকে। বিশেষ করে ভোগান্তির শিকার হন ময়রারা। দুধের জন্য ক্রমশ পড়তে থাকে তাদের মিষ্টির মান। এর পরই পুলিশের দ্বারস্থ হন তাঁরা। তদন্তে নামে চিৎপুর থানার পুলিশ।

তদন্তে নেমে দুধের উৎস খোঁজ করেন পুলিশ আধিকারিকরা। জানা যায়, উত্তর কলকাতারই একটি সংস্থা থেকে দুধ কেনে সন্দেহভাজনরা। সোমবার সকালে সাধারণ পোশাকে তাদের পিছু নেন পুলিশকর্মীরা। বিটি রোডের ধারে ওই সংস্থা থেকে দুধ কিনে পিক আপ ট্রাকে তুলে চিৎপুরের দিকে আসার সময় তাদের পিছু ধাওয়া করেন। এর পরের দৃশ্যে হতবাক হয়ে যান পুলিশকর্মীরাও।

চিৎপুর এলাকয় একটি গুদামে ঢুকে যায় গাড়িটি। এর পর পুলিশকর্মীরা দেখেন, সেখানে দুধের ক্যান থেকে ঢেলে রাখা হচ্ছে দুধ। তার বদলে মেশানো হচ্ছে পাশের পচা পুকুরের জল। এর পর কাপড় দিয়ে ছেঁকে নেওয়া হচ্ছে সেই দুধ।

সেখানেই হাতেনাতে ৩ জনকে পাকড়াও করেন পুলিশকর্মীর। ধৃতদের নাম সুরেন্দ্র যাদব, বিজয় মাহাতো ও সুভাষ মল্লিক। এদের মধ্যে বিজয় ও সুভাষ পেশায় দুগ্ধব্যবসায়ী। অন্যজন গাড়ির চালক। ধৃতদের সোমবার আদালতে পেশ করে ৩ দিনের জন্য হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। এই চক্র কতদূর ছড়িয়ে তা জানতে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।



বন্ধ করুন