বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কৃষক সম্মান নিধির তথ্য যাচাই করতে মমতাকে চিঠি কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রীর
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

কৃষক সম্মান নিধির তথ্য যাচাই করতে মমতাকে চিঠি কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রীর

  • সম্প্রতি কেন্দ্রের টাকা রাজ্যের মাধ্যমে বণ্টনের প্রস্তাব দেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু তা পত্রপাঠ খারিজ করে দেয় কেন্দ্র। এর পর গত সোমবার নবান্নে মমতা জানান কেন্দ্রের দাবি মতো কৃষক সম্মান নিধি প্রকল্পে জমির আয়তন যাচাই করে দিতে তৈরি রাজ্য।

পশ্চিমবঙ্গের কৃষকদের কৃষক সম্মান নিধি প্রকল্পের সুবিধা পৌঁছে দিতে রাজ্য সরকারকে নোডাল বিভাগ গঠনের অনুরোধ করে চিঠি দিলেন কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর। বুধবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে লেখা এই চিঠি পৌঁছেছে নবান্নয়। তাতে কেন্দ্রের তরফে রাজ্যকে আবেদনকারী কৃষকদের জমির তথ্যের সত্যতা যাচাই করতে অনুরোধ করা হয়েছে। তার পর সরাসরি কৃষকের অ্যাকাউন্টে পৌঁছবে টাকা। 

কৃষক সম্মান নিধি প্রকল্পের অধীনে ২ একরের কম জায়গা রয়েছে এমন কৃষকদের বছরে ৩ কিস্তিতে মোট ৬ হাজার টাকা দেয় মোদী সরকার। পশ্চিমবঙ্গের প্রায় ২৩ লক্ষ কৃষক এই প্রকল্পে আবেদন করতে ইচ্ছুক বলে দাবি কেন্দ্রের। কিন্তু কেন্দ্রের প্রকল্প রাজ্যে চালু হতে দেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

সম্প্রতি কেন্দ্রের টাকা রাজ্যের মাধ্যমে বণ্টনের প্রস্তাব দেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু তা পত্রপাঠ খারিজ করে দেয় কেন্দ্র। এর পর গত সোমবার নবান্নে মমতা জানান কেন্দ্রের দাবি মতো কৃষক সম্মান নিধি প্রকল্পে জমির আয়তন যাচাই করে দিতে তৈরি রাজ্য। তার এক দিন পরই দিল্লি থেকে এল চিঠি। 

চিঠিতে কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী মুখ্যমন্ত্রীকে লিখেছেন, প্রকল্পের অধীনে জমা পড়া আবেদনপত্র যাচাইয়ের জন্য নোডাল বিভাগ তৈরি করে নোডাল অফিসার নিয়োগ করতে হবে রাজ্য সরকারকে। সেই বিভাগই জমির তথ্য যাচাই করবে। রাজ্য জমির তথ্য নির্ভুল বলে জানিয়ে দিলে সরাসরি সেই কৃষকের অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠাবে কেন্দ্রীয় সরকার। 

প্রকল্পের অধীকে কৃষকদের প্রাপ্য আটকে রাখার জন্য বুধবার মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বলেন, ‘ঠেলায় না পড়লে বিড়াল গাছে ওঠে না। বাংলার কৃষকরা ১৪,০০০ টাকা থেকে বঞ্চিত হয়েছে। রাজ্য সরকারকে তার ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করতে হবে।’

কেন্দ্রের চিঠির পর এখন দেখার কতদিনে নোডাল বিভাগ গঠন করে তৎপরতা শুরু করে নবান্ন। তবে তৃণমূলের তরফে দাবি করা হয়েছে, তাদের সরকার কৃষকদের জমির খাজনা মকুব করেছে। সঙ্গে রাজ্য সরকারের তরফে কৃষকদের বছরে ৫,০০০ টাকা করে দেওয়া হচ্ছে। 

 

বন্ধ করুন