বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Bondhu App: চালু হল বন্ধু অ্যাপের নতুন সংস্করণ, যোগ করা হল আরও কিছু ফিচার্স

Bondhu App: চালু হল বন্ধু অ্যাপের নতুন সংস্করণ, যোগ করা হল আরও কিছু ফিচার্স

বন্ধু অ্যাপের উদ্বোধন করলেন কলকাতা পুলিশ কমিশনার বিনীত গোয়েল। ছবি সৌজন্যে ফেসবুক

অনেকেই কোনও জিনিস হারিয়ে গেলে পুলিশের জেরার ভয়ে থানায় যেতে ভয় পান। অথবা ব্যস্ততার কারণে তারা অনেকেই থানায় যেতে পারেন না। তারা এর ফলে খুবই উপকৃত হবেন বলে মনে করছে পুলিশ। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে এই অ্যাপ চালু করা হয়েছিল এবং একাধিক ট্রায়ালের মধ্য দিয়ে চলেছিল। 

বন্ধু অ্যাপের আপগ্রেডেড ভার্সন আনল কলকাতা পুলিশ। এই অ্যাপের সাহায্যে জেনারেল ডায়েরি করার সুযোগ আগেই ছিল। এবার এই অ্যাপে নতুন একটি বিভাগ যুক্ত করা হয়েছে, যার মাধ্যমে কোনও জিনিস হারিয়ে গেলে জেনারেল ডায়েরি করা যাবে এবং রিপোর্টের একটি প্রতিলিপিও ডাউনলোড করা যাবে। গতকাল শনিবার বন্ধু অ্যাপের নতুন সংস্করণের উদ্বোধন করেন কলকাতা পুলিশ কমিশনার বিনীত গোয়েল।

সাধারণত, অনেকেই কোনও জিনিস হারিয়ে গেলে পুলিশের জেরার ভয়ে থানায় যেতে ভয় পান। অথবা ব্যস্ততার কারণে তারা অনেকেই থানায় যেতে পারেন না। তারা এর ফলে খুবই উপকৃত হবেন বলে মনে করছে পুলিশ। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে এই অ্যাপ চালু করা হয়েছিল এবং একাধিক ট্রায়ালের মধ্য দিয়ে চলেছিল। এতদিন এই অ্যাপে হাতেগোনা কিছু ফিচার্স ছিল। এখন এই অ্যাপে আরও কিছু ফিচার্স যুক্ত করা হয়েছে। এই অ্যাপ নিয়ে পুনরায় প্রচার চালাচ্ছে কলকাতা পুলিশ। যদিও প্রায় ছয় বছর আগে চালু হওয়া এই অ্যাপটিতে হারিয়ে যাওয়া জিনিসের জন্য জেনারেল ডায়েরি করার সুবিধা ছিল। তবে আপগ্রেডেড ভার্সনটিকে তা আরও সহজ করে তোলা হয়েছে। অ্যাপের আপগ্রেডেড ভার্সনে ‘রিপোর্ট মিসিং আর্টিকেল’ নামে একটি নতুন বিভাগ যোগ করা হয়েছে। সেখানে হারিয়ে যাওয়া জিনিস নিয়ে রিপোর্ট করা যাবে।

পুলিশের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, অ্যাপটির লক্ষ্য একটি জিডি দায়ের করতে যে সময় লাগে তা কমানো এবং কোনও পুলিশ একটি মামলা দায়ের করতে অস্বীকার করার সম্ভাবনাও কমিয়ে দেওয়া। তাছাড়া এর ফলে থানায় ভিড় অনেক কম হবে এবং পুলিশ আরও গুরুতর মামলা সময় দিয়ে শুনতে পারবে। মোবাইল, সিম কার্ড, আধার কার্ড, ল্যাপটপ, শংসাপত্র এবং এটিএম কার্ড যে কোনও জিনিস হারিয়ে গেলে এই অ্যাপের মাধ্যমে রিপোর্ট করা যেতে পারে। আবেদনকারী পিডিএফ ফরম্যাটে তার জিডি পেয়ে যাবেন।

পুলিশের প্রচেষ্টা অবশ্য কলকাতাবাসীদের কাছ থেকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেয়েছে। নেটিজেনদের একজন লিখেছেন, ‘এটি একটি অত্যন্ত প্রশংসনীয় পদক্ষেপ। কিন্তু ই-জিডি করার পরে, আমাদের স্ট্যাটাস অনুসন্ধান করার কোন বিকল্প নেই। দয়া করে স্ট্যাটাসটিও যোগ করুন।’

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন