বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Upper Primary teachers' recruitment: পুজো পেরিয়ে গেলেও হল না উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ, 'কাঁটা' মামলা
 (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
 (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

Upper Primary teachers' recruitment: পুজো পেরিয়ে গেলেও হল না উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ, 'কাঁটা' মামলা

২০১৬ সালে উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের জন্য টেটের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়েছিল। গত বছর ১১ ডিসেন্বর আদালতের রায়ে খারিজ হয়ে যায় সেই নিয়োগ প্রক্রিয়া।

আইনি জটিলতায় আটকে রয়েছে উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়া। কবে এই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হবে, সে বিষয়ে নিশ্চিত নন চাকরিপ্রার্থীরা। উল্লেখ্য, উচ্চ প্রাথমিকে এক লাখ ৩২ হাজার টেট প্রার্থীর তথ্য যাচাই করে ১৫ হাজার ৪৩৬ জনের নাম উঠেছে। কিন্তু ইন্টারভিউয়ে ডাক না পাওয়া চাকরিপ্রার্থীরা আদালতের দ্বারস্থ হওয়ায় নিয়োগ প্রক্রিয়ার কাজ ফের থমকে গিয়েছে।

২০১৬ সালে উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের জন্য টেটের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়েছিল। গত বছর ১১ ডিসেন্বর আদালতের রায়ে খারিজ হয়ে যায় সেই নিয়োগ প্রক্রিয়া। তখনই ফের নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করার জন্য চলতি বছরের ৩১ জুলাই সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিল আদালত। কিন্তু সেই সময়সীমার মধ্যে নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করা সম্ভব হয়নি। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী, যাঁরা ইন্টারভিউয়ে ডাক পাননি, অথচ যাঁরা মনে করছেন ডাক পাওয়ার যোগ্য, স্কুল সার্ভিস কমিশনকে তাঁদের অভিযোগ শুনতে হবে। সেইমতো স্কুল সার্ভিস কমিশনে সেই শুনানি প্রক্রিয়া চলছে। গত ২০ জুলাই আদালত জানিয়ে দিয়েছিল, ইন্টারভিউয়ে যাঁদের নাম ওঠেনি, তাঁদের অভিযোগ শুনে ১২ সপ্তাহের মধ্যে আদালতকে রিপোর্ট জমা দিতে হবে। সেই সময়সীমা পেরিয়ে যেতেও আর দেরি নেই। ফলে উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে চরম অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে।

স্কুল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান শুভশংকর সরকার জানিয়েছেন, 'প্রথমে ১২ হাজার প্রার্থীর অভিযোগ শোনার কথা ছিল। তবে সেই সংখ্যাটি বেড়ে ১৭ হাজারে দাঁড়িয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ১২ সপ্তাহের মধ্যে শুনানি প্রক্রিয়া চালানো কার্যত অসম্ভব। সেই কারণে আদালতের থেকে আরও কিছুটা সময় আমরা আবেদন করেছি।'

বন্ধ করুন