ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

পার্থর অনুরোধে পদত্যাগ পত্র প্রত্যাহার করলেন উপাচার্য, স্বস্তিতে রবীন্দ্রভারতী

  • পার্থ বলেন, এটা একটা সামগ্রিক সামাজিক ব্যধি। আপনি একা এর দায় নিতে যাবেন কেন?’

শিক্ষামন্ত্রীর অনুরোধে ইস্তফা ফিরিয়ে নিলেন রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সব্যসাচী বসু রায়চৌধুরী। শনিবার ইস্তফা প্রত্যাহার করেছেন তিনি। জানিয়েছেন, কাজ চালিয়ে যাবেন আগের মতোই।

রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কাণ্ডে শুক্রবার সন্ধ্যায় ইস্তফা দেন উপাচার্য। দিনভর ওই ঘটনায় শোরগোলের পর রাজ্যপাল ও শিক্ষামন্ত্রীকে ইস্তফা পাঠান তিনি। তবে রাতেই শিক্ষামন্ত্রী জানিয়ে দেন, ইস্তফা গৃহীত হবে না।

শনিবার উপাচার্যের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর বেশ কিছুক্ষণ কথা হয়। এর পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আমি ওনাকে বুঝিয়ে বলেছি। এই ঘটনায় ওনার কোনও দোষ নেই। এটা একটা সামগ্রিক সামাজিক ব্যধি। আপনি একা এর দায় নিতে যাবেন কেন?’

সঙ্গে এদিন পার্থবাবু বুঝিয়ে দিয়েছেন, এই ঘটনায় অভিযুক্তদের পাশে নেই শাসকদল। তিনি স্পষ্ট করে বলেছেন, ‘ছাত্রছাত্রীদের কাণ্ডজ্ঞানহীনতায় লজ্জায় মাথা হেঁট হয়ে যাচ্ছে। কী করে রবীন্দ্রনাথের গানে এমন কুকথা বসানোর ভাবনা কারও মাথায় আসতে পারে?’ সরকার অপসংস্কৃতিকে প্রশ্রয় দেবে না বলেও জানিয়ে দেন তিনি। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই জানা যায়, ওই ঘটনার তদন্তে বিশেষ দল গঠন করেছে লালবাজার।

ওদিকে উপাচার্যকে ইস্তফা প্রত্যাহার করে নিতে বলেন পড়ুয়ারাও। সবার অনুরোধ বিবেচনা করে বেলা বাড়লে পদত্যাগ প্রত্যাহার করেন সব্যসাচী বসু রায়চৌধুরী।



বন্ধ করুন