বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > রাতের অন্ধকারে গাড়ির চাকা, ব্যাটারি খুলে চুরি! ‌রাজারহাট থেকে ধৃত ৪
রাতের অন্ধকারে গাড়ির চাকা, ব্যাটারি খুলে চুরি! ‌রাজারহাট থেকে ধৃত ৪: ছবিটি প্রতীকী (‌সৌজন্য ফেসবুক)‌
রাতের অন্ধকারে গাড়ির চাকা, ব্যাটারি খুলে চুরি! ‌রাজারহাট থেকে ধৃত ৪: ছবিটি প্রতীকী (‌সৌজন্য ফেসবুক)‌

রাতের অন্ধকারে গাড়ির চাকা, ব্যাটারি খুলে চুরি! ‌রাজারহাট থেকে ধৃত ৪

  • রাজারহাটের বিভিন্ন এলাকায় রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা বাস, লরি ছাড়াও বিভিন্ন ছোট-‌বড় গাড়ি থেকে চাকা ও ব্যাটারি খুলে চম্পট দিচ্ছে দুষ্কৃতীরা।তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, ওই এলাকায় একটি চোরের চক্র এই কাজের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে।এর পরই গোপন সূত্রে খবর পেয়ে রাতে হানা দিয়ে ওই ৪ জন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়।

রাতের অন্ধকারে শখের গাড়িটি রাস্তার ধারে দাঁড় করিয়ে কিছুক্ষণের জন্য হয়ত হোটেলে খেতে ঢুকেছেন অথবা অফিসের জরুরী কোনও কাজে আটকে পড়েছেন। একটু আগেই যেখানে অক্ষত অবস্থায় গাড়িটি রেখে গিয়েছিলেন, ফিরে এসে দেখলেন তার চাকা উধাও!‌ কেউ আপনার গাড়ির ওপর আগে থেকেই নজর রাখছিল। গাড়ি ছেড়ে কিছুক্ষণের জন্য বের হতেই দ্রুত হাত সাফ করে এলাকা ছেড়ে চম্পট দিয়েছে দুষ্কৃতীরা। এবার রাস্তার উপরে দাঁড়িয়ে থাকা গাড়িগুলোর নিখুঁত ভাবে চাকা কিংবা ব্যটারি দ্রুত খুলে নিতে সিদ্ধহস্ত চোর চক্রের হদিশ পেল পুলিশ। শনিবার রাতে রাজারহাটের রোহোন্ডা, বেয়াড়া ও উত্তর যোজরা এলাকায় হানা দিয়ে চার জনকে গ্রেফতার করেছে রাজারহাট থানার পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতদের নাম রউফ আলী ওরফে খুদে(৩৪), রাজ্জাক আলী ওরফে রাজু(৩১), মইদুল রহমান(২৪) ও আবেদ আলী ওরফে ক্ষুদিরাম(৩৭)‌।

গত কয়েক মাস ধরে তাঁদের কাছে অভিযোগ আসছিল যে, রাজারহাটের বিভিন্ন এলাকায় রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা বাস, লরি ছাড়াও বিভিন্ন ছোট-‌বড় গাড়ি থেকে চাকা ও ব্যাটারি খুলে চম্পট দিচ্ছে দুষ্কৃতীরা।তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, ওই এলাকায় একটি চোরের চক্র এই কাজের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে।এর পরই গোপন সূত্রে খবর পেয়ে রাতে হানা দিয়ে ওই ৪ জন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, বিশেষত বিধানসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গ থেকে আসা পুলিশের বাসগুলিকে এরা টার্গেট করত। রাতের অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে গাড়িগুলো থেকে চাকা ও ব্যাটারি নিয়ে চম্পট দিত। রবিবার ধৃতদের বারাসত আদালতে তোলা হলে, পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত। এই চক্রের সঙ্গে আর কারা যুক্ত আছে তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে রাজারহাট থানার পুলিশ।

 

বন্ধ করুন