বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > করোনায় প্রয়াত সিটু নেতা শ্যামল চক্রবর্তী
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

করোনায় প্রয়াত সিটু নেতা শ্যামল চক্রবর্তী

  • বয়সের ভারে নানা সংক্রমণে আক্রান্ত হলেও কাহিল হননি তিনি।

করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত সিটু নেতা শ্যামল চক্রবর্তী। বৃহস্পতিবার দুপুরে কলকাতার পিয়ারলেস হাসপাতালে প্রয়াণ হয় তাঁর। গত বেশ কয়েকদিন ধরে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছিল। ৭৮ বছর বয়সে মৃত্যু হল তাঁর। শ্যামলবাবুর প্রয়াণে পিতৃবিয়োগ হল অভিনেত্রী উষসী চক্রবর্তীর। 

গত ৩০ করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে শ্যামলবাবুর। তার পর তাঁকে ভর্তি করা হয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে। সেখান থেকে স্থানান্তরিত করা হয় পিয়ারলেসে। গত ১ অগাস্ট থেকে ভেন্টিলেশনে ছিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার দুপুর ১.৫০ মিনিটে প্রয়াণ হয় তাঁর। 

দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে পশ্চিমবঙ্গ তথা গোটা দেশের শ্রমিক আন্দোলনের সঙ্গে ওতপ্রত ভাবে জড়িয়ে ছিলেন শ্যামলবাবু। শ্রমিকদের অধিকার রক্ষায় আন্দোলনে নেমে একাধিকবার গ্রেফতার হতে হয়েছে তাঁকে। রাজ্যের মন্ত্রিত্বও সামলেছেন তিনি। ছিলেন রাজ্যসভার সাংসদ। বয়সের ভারে নানা সংক্রমণে আক্রান্ত হলেও কাহিল হননি তিনি।

এর আগেও বেশ কয়েকবার ফুসফুসে সংক্রমণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছিল শ্যামলবাবুকেষ এবার শ্যামলবাবুর করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর জানিয়েছিলেন মেয়ে উষসী। কিন্তু এবার আর ফেরা হল না।

দলের তরফে জানানো হয়েছে, করোনার প্রটোকল মেনে শ্যামলবাবুর দেহের সৎকার হবে। তাঁর দেহে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর সুযোগ পাবেন না কেউ। দেহ সৎকার হবে কলকাতা পুরসভার উদ্যোগে।

 

বন্ধ করুন