বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > স্বাস্থ্যসাথীর জট কাটাতে বেসরকারি হাসপাতালের সঙ্গে বৈঠকে মুখ্যসচিব
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

স্বাস্থ্যসাথীর জট কাটাতে বেসরকারি হাসপাতালের সঙ্গে বৈঠকে মুখ্যসচিব

  • উলটো দিকে বেসরকারি হাসপাতালগুলির দাবি, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের আওতায় বিভিন্ন পরীক্ষা ও পরিষেবার যে মূল্য রাজ্য সরকার বেঁধে দিয়েছে তা দিয়ে হাসপাতাল চালানো সম্ভব নয়। তাছাড়া রাজ্য সরকার বকেয়া মেটাতে দেরি করে।

স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের বেসরকারি হাসপাতালগুলির দাবিদাওয়া জানতে হাসপাতালের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার এই বৈঠকে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের অধীনে বিভিন্ন পরীক্ষা ও পরিষেবার ন্যূনতম নির্ধারিত মূল্য বাড়ানোর দাবি জানায় হাসপাতালগুলি। এব্যাপারে বিবেচনার আশ্বাস দিয়ে সরকারের নির্দেশ, কেউ যেন না হাসপাতাল থেকে না ফেরে। 

সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত বাসিন্দাকে স্বাস্থ্যসাথীর আওতায় এনেছে রাজ্য সরকার। ফলে যোগ হয়েছে আরও ২.৫ কোটি মানুষ। এই বিপুল সংখ্যায় মানুষকে পরিষেবা দেওয়ার পরিকাঠামো হাসপাতালগুলির রয়েছে কি না তা নিয়ে চিন্তিত রাজ্য সরকার। 

উলটো দিকে বেসরকারি হাসপাতালগুলির দাবি, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের আওতায় বিভিন্ন পরীক্ষা ও পরিষেবার যে মূল্য রাজ্য সরকার বেঁধে দিয়েছে তা দিয়ে হাসপাতাল চালানো সম্ভব নয়। তাছাড়া রাজ্য সরকার বকেয়া মেটাতে দেরি করে। সব মিলিয়ে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের অধীনে পরিষেবা দিয়ে তেমন লাভ হয় না হাসপাতালের। সেজন্য প্রকল্পের অধীনে পরিষেবা ও পরীক্ষার মূল্যবৃদ্ধি ও দ্রুত বকেয়া মেটানোর দাবি জানিয়েছে তারা। 

স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের অধীনে বার্ষিক ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত চিকিৎসা বিমার সুযোগ পায় পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত পরিবার। রাজ্যে স্বাস্থ্য অধিকর্তা অজয় চক্রবর্তী জানিয়েছেন, ‘হাসপাতালগুলির দাবি মেনে মূল্যতালিকার পুনর্মূল্যায়ণ হবে।’

 

বন্ধ করুন